• শনিবার   ০৮ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭

  • || ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
৫৪

অভ্যন্তরীণ কোন্দলে জর্জরিত বিএনপি

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ৯ জুলাই ২০২০  

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভরাডুবি পর এখন অস্তিত্ব সংকটের মুখে পড়েছে বিএনপি। মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি, সাংগঠনিক দুর্বলতা আর দলের মধ্যে চেইন অব কমান্ড ভেঙে পড়ায় অভ্যন্তরীণ কোন্দলে জর্জরিত দলটি।

এক সময় বিএনপি'র মূল শক্তি ছিল ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল এবং মহানগর কেন্দ্রীয় কমিটি। যোগ্য, মেধাবী ও চৌকস নেতার অভাবে এসব সংগঠন আজ প্রায় অকেজো। নেই কোনো সাংগঠনিক কার্যক্রম। নেই কোনো ছন্দ। 

দলীয় সূত্রে জানা যায়, যুবদল কার্যকারিতা হারিয়েছে অনেক আগেই। নেতৃত্ব কোন্দলে বিপর্যস্ত সংগঠনটি। দীর্ঘদিন আগেই কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় এখন কেউ কাউকে মানছেন না। সেচ্ছাসেবক দলের অবস্থাও একই।  

এদিকে, দীর্ঘ ২৭ বছর পর ভোটের মাধ্যমে ছাত্রদলের নেতা নির্বাচিত করা হলেও এখন পর্যন্ত সেই কমিটি দৃশ্যমান কিছুই করে দেখাতে পারেনি। জানা গেছে, সিন্ডিকেট মুক্ত করার জন্য এ নির্বাচন করা হলেও এখনো সিন্ডিকেটেই আবদ্ধ ছাত্রদল।

দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঢাকা মহানগর কেন্দ্রীয় কমিটিতে ব্যর্থতার অভিযোগ এনে সাদেক হোসেন খোকাকে সরিয়ে মির্জা আব্বাস ও হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে দায়িত্ব দেয়া হয়। তারাও কার্যকর কিছুই করে দেখাতে পারেননি। এরপর ঢাকাকে দুই ভাগ করে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হলেও বার বার ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে সংগঠনটি।

সংশ্লিষ্টদের মতে, দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকা ও কার্যত সাংগঠনিক কাজ না থাকায় হতাশ হয়ে পড়েছে দলটির নেতাকর্মীরা। কেন্দ্রীয় কমিটিতেও অনেক পদ ফাঁকা। ফলে দীর্ঘদিন ধরে নেতা সংকটে থেকে অঙ্গসংগঠনগুলো অকেজো হয়ে পড়তে শুরু করেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপি'র এক সময়ের প্রভাবশালী এক নেতা বলেন, বিএনপিতে এখন নতুন বলে কিছু নেই। এখন পর্যন্ত দলই গোছাতে পারেনি কেউ। কেননা দলের কার্যক্রম শুধুমাত্র জিয়া পরিবার ও তাদের নেতৃত্ব নিয়েই ব্যস্ত। জনগণের দিকে তাকানোর সময় কই তাদের?

তিনি আরো বলেন, জনগণের সমস্যা নিয়ে কাজ করলে অবশ্যই জনগণ পাশে দাঁড়াতো। যেমন- কোটা আন্দোলন, ছাত্র আন্দোলন ইত্যাদি। কিন্তু আমরা সেসব আন্দোলনকে কাজে লাগাতে পারিনি। শুধুমাত্র দলের কয়েকজন দালাল ও পা-চাটা নেতাকর্মীদের কারণে। তারা সব সময় দলের দৃষ্টিভঙ্গি জিয়া পরিবারকেন্দ্রিক করে রাখতে চায়।    

এ বিষয়ে বিএনপিপন্থী কয়েকজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবী বলেন, বিএনপিতে বর্তমানে দক্ষ, মেধাবী ও চৌকস নেতার বড়ই অভাব। এ দলে এখনো বুড়ো, বয়স্ক, অসুস্থ ও অকেজো নেতা দিয়ে ভরা। তারা এক ঘণ্টা কোথাও দাঁড়িয়ে কোনো কর্মসূচি পালন করতে পারেন না। এছাড়াও তাদের নেতৃত্বে কোনো ক্যারিশম্যাটিক কিছু নেই। যার ফলে কোনো কর্মসূচিতেই তারা সফল নন। 

তাদের দাবি, বিএনপিতে মধ্যম সারির নেতাদের এগিয়ে আনতে হবে। যারা ত্যাগী ও মেধাবী তাদের হাতে দলের দায়িত্ব তুলে দিতে হবে। তা না হলে এ দল দিন দিন হারিয়ে যাবে।

রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর