শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪২৬   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
১৫

আয়কর দিলেন অর্থমন্ত্রী, রিটার্ন দাখিল প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ১৪ নভেম্বর ২০১৯  

ঢাকার অফিসার্স ক্লাবে সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলার উদ্বোধন করে নিজের এবং স্ত্রী ও দুই মেয়ের আয়কর জমা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

তিনজনেরটা মিলিয়ে মোট ৭ কোটি ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৯৫৬ টাকা আয়কর জমা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে আয়কর মেলার প্রথম দিনেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আয়কর বিবরণী (রিটার্ন) জমা দেওয়া হয়েছে।

এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া জানিয়েছেন, মেলা শুরু হওয়ার পরপরই সিদ্দিকুর রহমান চৌধুরী নামে একজন প্রধানমন্ত্রীর প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত হয়ে এই রিটার্ন দাখিল করেছেন।

প্রধানমন্ত্রীর আয়কর কত টাকা উল্লেখ করা হয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “সে বিষয়ে তার অনুমতি ছাড়া প্রকাশ করা উচিত হবে না।”

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর বেইলি রোডের অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গণে ‘জাতীয় আয়কর মেলা ২০১৯’ এর উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল। এ সময় এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া এবং সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকার বেইলি রোডের অফিসার্স ক্লাবে শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী জাতীয় আয়কর মেলা। বৃহস্পতিবার মেলার উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

এরপর অফিসার্স ক্লাব সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত উদ্বোধনী অনু্ষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল বলেন, “আমি, আমার স্ত্রী এবং দুই মেয়ের বাৎসরিক আয় থেকে ৭ কোটি ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৯৫৬ টাকা আয়কর দিয়েছি।

“এরমধ্যে আমার নিজের আয়কর হিসেবে দিয়েছি ৯১ লাখ ৪৬ হাজার ৮০ টাকা। আমার স্ত্রীর আয়কর হিসেবে জমা দিয়েছি ৭১ লাখ ২৯ হাজার ১৪১ টাকা। আমার বড় মেয়ে কাশফি কামালের আয়কর হিসেবে জমা দিয়েছি ২ কোটি ৮২ লাখ ১৩ হাজার ৫৫০ টাকা এবং ছোট মেয়ে নাফিসা কামালের আয়কর ২ কোটি ৬১ লাখ ৯০ হাজার ১৮৫ টাকা জমা দিয়েছি।”

অনুষ্ঠানে এনবিআর চেয়ারম্যান জানান, মেলার প্রথম দিনেই ব্যক্তি শ্রেণির কয়েকজন বড় করদাতা আয়কর জমা দিয়েছেন। সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন চলতি অর্থবছরের জন্য ২৫ কোটি টাকা আয়কর দিয়েছেন।

এছাড়া গ্রামীণফোন আয়করের অংশ হিসেবে ১৫০ কোটি টাকা এবং ইসলামী ব্যাংক আয়কর হিসেবে ১০০ কোটি টাকা জমা দিয়েছে।

সক্ষম সব নাগরিককে কর দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, “দেশের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে নিতে সক্ষমতা রয়েছে এমন সব নাগরিকের আয়কর জমা দেওয়া প্রয়োজন। সবাই এই বিষয়ে স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে আসবেন বলে আশা করি।

 

“দেশের সক্ষম জনগণকে আয়কর দিতে হবে। এই অর্থ দিয়ে আমাদের রাস্তা-ঘাট, স্কুল-কলেজ এবং সবার ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিতে হবে।”

এই বিভাগের আরো খবর