• রোববার   ৩১ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৬ ১৪২৭

  • || ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
৪৮

একসাথে করোনার বিরুদ্ধে লড়ার আহ্বান যুক্তরাজ্যের রানীর

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ৫ এপ্রিল ২০২০  

শৃঙ্খলা মেনে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে সবাইকে একসাথে লড়াইয়ের আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ। জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে তিনি এ আহ্বান জানিয়েছেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। স্থানীয় সময় রোববার রাত ৮টায় টিভি চ্যানেল, রেডিও ও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে তার এ ভাষণ একযোগে প্রচারিত হবে। তবে তার আগেই ভাষণের একটি সংক্ষিপ্ত অংশ প্রকাশ করা হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনভাইরাসের এ মহামারির সময়ে লোকজনকে নিজ উদ্যোগে শৃঙ্খলা মেনে চলার মাধ্যমে বিদ্যমান পরিস্থিতি মোকাবিলার আহ্বান জানিয়েছেন রানী। এই বিপর্যয়ের সময়ে ব্রিটিশরা যে দুঃখ, বেদনা ও আর্থিক সংকটের মুখোমুখি হচ্ছেন ভাষণে তা-ও স্বীকার করেন রানী। ধন্যবাদ জানান জাতীয় স্বাস্থ্যসেবায় নিয়োজিত কর্মীদের। সংকটকালে জীবন বাজি রেখে আক্রান্তদের সেবা দিয়ে যাওয়া স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশংসা করেন তিনি।

প্রত্যেকে ব্যক্তিগতভাবে যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে তা পালনের ওপর জোর দেন রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ।

রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ বলেন, একটি ক্রমবর্ধমান চ্যালেঞ্জের সময়ে আমি আপনাদের সঙ্গে কথা বলছি। আমাদের জাতীয় জীবনে এমন একটি পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে যা কারও জন্য দুঃখ নিয়ে এসেছে। অনেকের কাছে আর্থিক সংকট এবং আমাদের সবার দৈনন্দিন জীবনে একটি বিশাল পরিবর্তন নিয়ে এসেছে।

তিনি বলেন, এই সংকটময় মুহূর্তে আমাদের নাগরিকরা এক কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। তবে আমাদের প্রত্যাশা পরিস্থিতি এক সময় স্বাভাবিক হবে। তখন সবাই এমন কঠিন পরিস্থিতি মোকাবিলা করে জয়ী হওয়ার জন্য গর্ব করবে। এ প্রজন্মের ব্রিটিশদের তখন অন্য যে কোনও সময়ের চেয়ে শক্তিশালী হিসেবে বিবেচনা করা হবে।

প্রসঙ্গত, রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ নিজেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। এর আগে ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরাধিকারী প্রিন্স চার্লসও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে রাজপরিবারের তরফ থেকে জানানো হয়। গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই বেশ কিছু রাজকীয় অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন প্রিন্স অব ওয়েলস। এসব অনুষ্ঠান থেকে কোনভাবে তার শরীরে করোনার সংক্রমণ হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে রাজপরিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে যে, প্রিন্স চার্লস স্ত্রী ডাচেস অব কর্নওয়ালকে নিয়ে স্কটল্যান্ডে আইসোলেশনে আছেন। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৪২ হাজার ৪৭৯। এর মধ্যে চার হাজার ৩২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে রাজপরিবারের সদস্য থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন তার সন্তান সম্ভবা স্ত্রী ও তার মন্ত্রিসভার সদস্যও রয়েছেন।

আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর