• সোমবার   ২৫ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৭

  • || ০২ শাওয়াল ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
৬২

করোনায় ‘সরকারি লকডাউন’ নিয়ে রিজভীর মিথ্যাচার, সমালোচনা তুঙ্গে

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ১৭ মে ২০২০  

এবার করোনাকালীন লকডাউন নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারিতায় নেমেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। শনিবার (১৬ মে) দুপুরে রাজধানীর কাপ্তান বাজার এলাকায় সামাজিক দূরত্ব না মেনে এক অনুষ্ঠানে তিনি সরকারের বিরুদ্ধে এই মিথ্যাচার করেন।

বিশিষ্টজনরা বলছেন, নালিশ আর মিথ্যাচারিতা করাই বিএনপির কাজ। এটা তাদের পুরনো অভ্যাস। নিজেদের দোষ অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে তারা যেন এক পৈশাচিক আনন্দ পান। যে ধারাবাহিকতা তারা করোনা সংকটেও অব্যাহত রেখেছেন। এ থেকেই তাদের অস্বচ্ছ রাজনৈতিক মতাদর্শের নিদারুণ প্রমাণ মেলে।

নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র জানিয়েছে, নিজেদের দলীয় রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যে দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিএনপি, ২০ দলীয় নেতাকর্মী ও তাদের পেইড বুদ্ধিজীবী-সাংবাদিকরা একের পর এক মনগড়া মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করে সরকারবিরোধী অপপ্রচার অব্যাহত রেখেছেন।

তারই অংশ হিসেবে শনিবার (১৬ মে) রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে বিএনপির দলীয় সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেছেন, ‘সরকার সংকট সমাধান করে না সংকট সৃষ্টি করছে। সংকট সমাধান করলে কখনোই ত্রাণ লুটপাট হতো না। করোনাভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করত না। লকডাউন শিথিল করে সারা দেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে দিতে সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে সরকার। প্রতিদিন হাজারের বেশি লোক আক্রান্ত হচ্ছে। সরকার করোনা মোকাবিলায় সম্পূর্ণ ব্যর্থ।’

রিজভীর এই বক্তব্যকে ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ উল্লেখ করে দেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, চোরের মায়ের সবসময়ই বড় গলা হয়। আর এ কারণে বিএনপির দলীয় নেতাকর্মীরা এতো উচ্চবাচ্য করেন। তারা চলমান করোনা সংকটে জনমানুষের জন্য কি করেছেন, সে সম্পর্কে সবাই অবহিত। সবাই দেখেছেনও ধান কাটার নাম করে কৃষকদের থেকে চাঁদাবাজি ও তাদের মারধর, ত্রাণ সহায়তায় অর্ধ পচাগলা খাবার বিতরণ, দলীয় লোকের বাইরে কাউকে ত্রাণ না দেওয়াসহ তারা মানুষের উপর কি অত্যাচারই না করেছেন! সেই তারাই আবার এখন এসে সরকারের বিরুদ্ধে বড় গলায় মিথ্যাচার করছেন, সত্যিই সেলুকাস!

রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর