• সোমবার   ১৩ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪২৭

  • || ২২ জ্বিলকদ ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
২৯৪

করোনা ঠেকাতে আঞ্চলিক ভাষায় প্রচারণা, ভিডিও ভাইরাল

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২২ মার্চ ২০২০  

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে শঙ্কিত সবাই। কারণ ভাইরাসটির আক্রমণে মৃত্যুর মিছিলে ১৩ হাজার ৬৯৯ মানুষ যুক্ত হয়েছেন। সংক্রমিত হয়েছেন তিন লাখ আট হাজার ৬০৯ মানুষ। সংক্রমণ বা মৃত্যু ঠেকাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, বিভিন্ন দেশের গবেষক, রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্য সংস্থা নানা পরামর্শ দিচ্ছে। সেই পরামর্শ বাংলাদেশের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে দেয়া হচ্ছে।

তার অংশ হিসেবে বৃহত্তর নোয়াখালীতে আঞ্চলিক ভাষায় করোনা ঠিকাতে মাইকিং-এর মাধ্যমে প্রচারণা চালানো হয়েছে। যার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

ওই ভিডিওতে এক ব্যক্তি আঞ্চলিক ভাষায় করোনা সম্পর্কে এলাকাবাসীকে সতর্ক করে প্রচারণা চালিয়েছেন। তিনি বলেন‘ সম্মানিত এলাকাবাসী, শান্তিপ্রিয় দেশবাসী। বিশ্বব্যাপী যে করোনাভাইরাস দেখা দিয়েছে। হেতির জন্য বিশ্ব এখন আতঙ্কের ভিতরে আছে। এই করোনাভাইরাসের কোনো ওষুধ নাই।

মনে রাইখবেন, করোনাভাইরাসের কোনো ওষুধ এ পইজ্জন্ত আবিষ্কার কইত্তো পারে নো। এই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হই পুরা বিশ্বের ভিতরে হাজার হাজার লোক মারা যাইতেছে। এ জন্য করোনাভাইরাস থেকে আমরারে সচেতন অইতে অইব। বেশি বেশি সাবান দিয়ে হাত ধুইতে অইব। পাঁচ অক্ত নামাজ পড়ি আল্লার কাছে দুয়া কইত্তো অইব।

বিশেষ করি বিদেশ থেকে যেসব লোক দেশে আসে। বিদেশ থেকে যেসব লোক দেশে আইসবে। অন্তত ১৪ দিন পইজ্জন্ত হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে অইব। হোম কোয়ারেন্টিন হইতেছে, সে নিজে একলা নিজের ঘরের ভিতরে থাইকব। নিজের বিবি, বাইচ্চা হাতদি ধরতি পাইত্তনো। এটার নাম হচ্ছে হোম কোয়ারেন্টিন। আর বিশেষ করি চেয়ারম্যান সাবকে জানাইবেন। বিদেশ থেকে কোনো লোক আমাদের দেশে আসে। অব্যশই চেয়ারম্যান সাবকে ফোনের মাধ্যমে জানাইবেন। যে অমুক লোক আইসছে। সে যেন চেয়ারম্যান সাবের সঙ্গ ফোনে কথা বলে। সেটি খেয়াইল রাইখবেন।

দোকানের সামনে একটি বালতি ও সাবান রাইখবেন। কোনো কাস্টমার দোকানে ঢুইকবার আগে সাবান দিয়ে যেন হাত ধুইলয়। কোনো চা দোকানে বসি বসি গফ মাইত্তে ফাইত্তোনো। যেখানে লোক বেশি সেখানে বেশি বেশি গফ মাইত্তে ফাইত্তেইনো। চাই খাইবেন, চলি আইসবেন।

মনে রাইখবেন, করোনাভাইরাসের কোনো ওষুধ নাই। এটার ওষুধ অইছে আল্লার কাছে দোয়া করইবেন, সাবান দেই হাত ধুইবেন। কারোগো সাথে হ্যান্ডশেইক কইরবেন না, কোলাকোলি কইরবেন না। আর বাড়ির চারপাইশ খোল রাখবেন।

ভাবি, খালারা মনে রাইখবেন, বাড়ির চারপাশ পরিষ্কার রাইখবেন। যেন আপনার বাড়ি পরিষ্কার থাকে। একথা মনে রাইখবেন। আর মাদরাসা, মক্তব, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ দিছে। আপনার বারোগো বাড়ি বেড়াইবেন, নানিগো বাড়ি বেড়াইবেন এইটাললাই নো। এটা বন্ধ দিছে, যাতে আপনার পোলা মাইয়াকে বাড়িতে রাইখবেন। আপনার পোলা-মাইয়া বাড়িতো বারইতি না পারে।

যদি বাইতই বার অইজায়, তবে কোনো করোনা রোগীরে আফনের পুত বা ঝিয়ে যদি ধরে। আর হেতারা বাড়ি আইলে হেতারে ধইরবেন। আপনের স্বামী ধরব, একজনরে একজন ধইরব। ব্যাকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অইব। এ জন্য করোনাভাইরাস এমন একটা রোগ, বাড়ির ভিতরে যেরকম মোরগে একেইরে এইকেরে ধরলে হুগ্গুন মরে। ঠিক করোনাভাইরাস এ রকম। একজন তো একজন, একজন তো একজন, একজন তো একজন। এ জন্য আমরা সবাই সচেতন থাইকবো।

সবাইকে সবাই বলব, সাবান দিয়ে হাই ধুইব। অজু কইরব, নামাজ পইরব। আল্লার কাছে দোয়া কইরব। মনে রাইখবেন বিশ্বের মাঝে যে করোনাভাইরাস, এর কারণে হাজার হাজার মানুষ মারা যাইতেছে। এর মধ্যে ১৭ জন ডাক্তর মরি গেছে। এ জইন্য সবাই সচেতন থাকবো ইশাল্লাহ।

>>ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন<<

ইত্যাদি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর