• শনিবার   ১৬ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ২ ১৪২৭

  • || ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
একটানা ক্ষমতায় থাকার ফলে মানুষের উন্নয়ন করতে পারছি ডিজিটাল পদ্ধতিতে ভাতার টাকা সরাসরি পৌঁছাবে উপকারভোগীদের হাতে টিকা দেওয়ার সময় নেতাকর্মীদের ভূমিকা পালনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘জাতির পিতার শিক্ষাকে পুঁজি করে অসহায় মানুষের পাশে আছি’ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৬, শনাক্ত ৭১৮ আওয়ামী লীগ সরকারে আছে বলেই দেশ স্বনির্ভর হয়ে উঠছে: প্রধানমন্ত্রী এমডি পদের জন্য পদ্মাসেতু নির্মাণে বাধা দেয়া দুর্ভাগ্যজনক বঙ্গবন্ধু রাষ্ট্রের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয় সংগঠন গড়ার জন্য বঙ্গবন্ধু মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন: শেখ হাসিনা

খাদ্য অধিদপ্তরের সব কাজ ডিজিটাল পদ্ধতিতে হচ্ছে: মন্ত্রী

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর ২০২০  

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন খাদ্য অধিদপ্তরের প্রায় সব কাজ ডিজিটাল পদ্ধতিতে করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। দেশের প্রতিটা সেক্টর ডিজিটালাইজড হয়েছিল বলেই করোনা মহামারিকে মোকাবিলা করা অনেক সহজ হয়েছে বলেও জানান তিনি। খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল পদ্ধতির মাধ্যমে জনগণ ঘরে বসেই প্রতিটা সেক্টর থেকে সেবা নিয়েছে। এখন প্রায় সব কাজই ডিজিটাল পদ্ধতিতে করছি।

বুধবার (০২ ডিসেম্বর) নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুর নিয়ামতপুর উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে ‘৪২তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ’ উপলক্ষে আয়োজিত বিজ্ঞান মেলায় ঢাকা থেকে জুম অ্যাপের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। এই পথে নতুন প্রজন্মকে শরিক হতে হবে। সে লক্ষ্যে নতুন প্রজন্মকে আধুনিক বিজ্ঞান ভিত্তিক শিক্ষায় নিজেকে শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে। একটা সময় ছিল পরীক্ষার ফল বের হবার পর একজন পরীক্ষার্থীকে কয়েকদিন অপেক্ষা করতে হতো ফলাফল জানার জন্য। এখন বিজ্ঞানের কল্যাণে ডিজিটাল পদ্ধতির মাধ্যমে মুহূর্তের মধ্যেই একজন পরীক্ষার্থী তার ফলাফল জেনে যাচ্ছে। আর এসবই সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তার সুযোগ্য পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের কল্যাণে। তারাই প্রথম ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ আজ বাস্তবতা।

শিক্ষকদের উদ্দেশে সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, আপনারা হচ্ছেন মানুষ তৈরির কারিগর। ছাত্র-ছাত্রীদের মেধাবী করে গড়ে তোলেন। নতুন প্রজন্ম মেধাশূন্য হলে দেশ মেধাশূন্য হয়ে যাবে। দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে বিজ্ঞানভিত্তিক মেধাবী প্রজন্ম প্রয়োজন, বিজ্ঞানভিত্তিক জ্ঞানচর্চার মাধ্যমে মানুষের কল্যাণে নতুন প্রজন্মকে আত্মনিয়োগ করতে হবে।

মহামারি করোনার বিরুদ্ধে জয়ী হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। ’৭১ সালে যেমন সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশকে শত্রুমুক্ত করেছি, তেমনি সবাইকে মিলেমিশে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই মহামারি করোনা মোকাবিলা করে জয়ী হতে হবে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাইকে মাস্ক পরে নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বাইরে চলাচল করার আহ্বান জানান খাদ্যমন্ত্রী।

নিয়ামতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়া মারিয়া পেরেরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নিয়ামতপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব ফরিদ আহমেদ, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাদিরা বেগম, নিয়ামতপুর উপজেলার বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীবৃন্দ, উপজেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এবং স্থানীয়রা।