শুক্রবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৬   ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
৪১৮

চাকরি নিতে সংসদ সদস্যদের টাকা দিতে হবে কেন - শ ম রেজাউল করিম

প্রকাশিত: ২ মার্চ ২০১৯  


শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকরি নিতে কিংবা গভর্নিং বডির সদস্য হতে স্থানীয় সংসদ সদস্যদের টাকা দিতে হবে কেন ? এমন প্রশ্ন করেছেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী এডভোটেক শ ম রেজাউল করিম।  তিনি বলেন, সংসদ সদস্যদের দায়িত্ব হল এলাকার উন্নয়নে কাজ করা। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ বাণিজ্য করা, ঠিকাদারি কাজ ও টিআর-কাবিখার কাজে কমিশন নেওয়া সাংসদদের কাজ নয়। এ অপসংস্কৃতি থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। আজ শনিবার সকালে পিরোজপুর সরকারী সোহরাওয়ার্দী কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ও পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী এডভোকেট শ ম রেজাউল করিম এ কথা বলেন।
 এসময় তিনি বলেন,আমি সব সময় বিভিন্ন জনসভার চেয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসতে উৎসাহ পাই। কারন এখান থেকে অনেক কিছু শেখা যায়। শিক্ষকদের সান্নিদ্যে নিজেকে অনেক সমৃদ্ধ করা যায়। তিনি বলেন, একটি সন্তান সূ-শিক্ষায় শিক্ষিত হলে সে কখনও সন্ত্রাসী বা মাদকাসক্ত হতে পারেনা। 
ছাত্র রাজনীতি প্রসংগে মন্ত্রী বলেন, সবার আগে ছাত্রত্ব অর্জন করতে হবে, এরপর হবে রাজনীতি। আর ছাত্রদের রাজনীতি হবে শিক্ষার রাজনীতি। যে সংস্কৃতি আমাকে চরিত্রহীন, সন্ত্রাসী ও মাকাসক্ত করে সে সংস্কৃতি পরিহার করে আমাদের সুস্থ্যধারার সাংস্কৃতি ধারন করতে হবে। তিনি বলেন, সমাজ বা রাস্ট্রকে সব সময় দোষ দিয়ে লাভ নেই, পরিবারই পারে একজন সন্তানকে ভাল চরিত্রবান ও ভাল মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে। কারন আপনার সন্তান কথন কোথায় যায়, কার সাথে মেশে সে খোজ আপনাকেই রাখতে হবে। সন্ত্রাস, দুর্নীতি, ইভটিজিং ও মাদক এগুলো থেকে দলমত নির্বিশেষে সকলকে দুরে থাকতে হবে। প্রতিটি সন্তানকে সু-শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদেরকে ক্রীড়ার দিকে মনোযোগী হতে হবে। কেননা একটি মানুষের মধ্যে যদি শিক্ষার আলো না থাকে, চারিত্রিক গুনাবলি না থাকে তাহলে সে আর সত্যিকারের মানুষ হয়ে উঠতে পারে না। চরিত্রহীন মানুষ আর পশুর মধ্যে কোন পার্থক্য নাই।
মন্ত্রী বলেন, বিগত দিনে এ এলাকার উন্নয়নের জন্য কয়েক হাজার কোটি টাকার বরাদ্দ এলেও কাঙ্খিত উন্নয়ন হয়নি। তবে বর্তমানে পিরোজপুর-১ আসনের তিনটি উপজেলার উন্নয়নে ব্যাপক পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, খুব শিগ্রই পিরোজপুরে বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয় করার কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। পিরোজপুর ও নাজিরপুর উপজেলায় বিসিক শিল্পনগরী নির্মাণ করা হবে, সরকারী হাউজিং এস্টেট করা হবে। যার ৬০ভাগ সুবিধা পাবে পিরোজপুর জেলার মানুষ। তাছাড়া পিরোজপুর-১ আসনের (পিরোজপুর- নাজিরপুর -– স্বরুপকাঠী –) তিনটি উপজেলার মধ্যকার যাতায়াতের জন্য বড় দুটি নদীর ওপরে সেতু নির্মাণ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সেতু দুটি নির্মিত হলে নাজিরপুর থেকে সড়ক পথেই স্বরুপকাঠী উপজেলা সদরে যাতায়াত করা যাবে। তিনি আরো বলেন, আমার দ্বারা কেউ কোন দিন রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হবেন না এই বিষয়টি আমি আপনাদেরকে আশ্বস্ত করছি। আমার দল এমনকি পরিবারের কোন সদস্য যদি আমার নাম ভাঙ্গিয়ে কোন অনৈতিক সুবিধা বা কমিশন নেয়ার চিন্তা করে তাদেরকে সর্তক করে দেয়া হচ্ছে। নিয়োগ ও ঠিকাদারী কাজে আমাকে কোন কমিশন দিতে হবে না। তবে উন্নয়ন কাজ সঠিকভাবে করতে হবে।  
বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়ার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, পিরোজপুর জেলা প্রশাসক আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সালাম কবির ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও পিরোজপুর পৌর মেয়র আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মালেক। এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইংরেজী বিভাগীয় প্রধান সদানন্দ গাঈন, কলেজের সাবেক ভিপি মাসুদ আহম্মেদ রানা, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম টিটু, কলেজের ভিপি এস এম বায়েজিদ হোসেন প্রমুখ। 
 

এই বিভাগের আরো খবর