সোমবার   ১৮ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৪ ১৪২৬   ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
৩৬

ড্রোন আমদানি নীতিমালা করছে সরকার-মাহবুব আলী

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

 


ড্রোন আমদানি ও পরিচালনার নীতিমালা করছে সরকার। এই নীতিমালা তৈরির কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে। নীতিমালা হলে সরকারের কাছে ড্রোন সংক্রান্ত তথ্য সংরক্ষিত থাকবে বলে জানিয়েছেন বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী।
বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদ অধিবেশনে মন্ত্রীদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের এক প্রশ্নের উত্তরে প্রতিমন্ত্রী একথা জানান। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।
প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেন, বর্তমানে দেশে ড্রোনের সংখ্যা নিরূপিত হয়নি। সমগ্র বিশ্বে ড্রোন একটি নতুন বিষয়। বিশ্বের অন্য দেশের মতো ড্রোন পরিচালনা ও আমদানির বিষয়ে সুস্পষ্ট নীতিমালা প্রস্তুতের লক্ষ্যে বেসামারিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য মন্ত্রণালয় ও দপ্তর/সংস্থা কাজ করছে। নীতিমালা প্রকাশের পর রাষ্ট্রীয়ভাবে সরকারের কাছে ড্রোন সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য সংরক্ষিত থাকবে বলে আশা করা যায়।
তিনি বলেন, সম্প্রতি দেখা যায়, কিছু উৎসাহী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান বিনা অনুমতিতে বাংলাদেশের আকাশসীমায় আনম্যান্ড এরিয়েল ভেহিক্যাল সিস্টেম (ইউএভি/ইউএএস), রিমোট কন্ট্রোল প্লেন অথবা খেলনা প্লেন প্রভৃতি উড্ডয়ন পরিচালনা করছে। এসব অনুমোদিত উড্ডয়নের ফলে নিয়মিত উড্ডয়নকারী বিভিন্ন অনুমোদিত দেশি-বিদেশি প্লেন, হেলিকপ্টার ও দ্রুতগতি সম্পন্ন সামরিক বিমানের সঙ্গে আকস্মিক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।
বাংলাদেশে আনম্যান্ড ভেহিক্যাল সিস্টেম (ইউএভি/ইউএএস) বা রিমোট দিয়ে পরিচালিত প্লেন বা ড্রোনের ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে। এ কারণে ইউএভি/ইউএএস পরিচালনার ক্ষেত্রে একটি সুনির্দিষ্ট নীতিমালার প্রয়োজনীয়তা বেবিচক তথা সরকার অনুভব করেছে। সে মোতাবেক ড্রোন নীতিমালা প্রস্তুতের লক্ষ্যে মন্ত্রণালয় ও সংস্থার কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটি কাজ করছে, যা বর্তমানে চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। ওই নীতিমালায় ড্রোনের আকার, রেজিস্ট্রেশন ও উড্ডয়ন সংক্রান্ত তথ্যাদিসহ অন্যান্য বিষয়ও অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

এই বিভাগের আরো খবর