• মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৪ ১৪২৬

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
যারা সাহায্য চাইতে পারবে না তাদের তালিকা করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসকরা কেন চিকিৎসা দেবে না, এটা খুব দুঃখজনক : প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নীতিমালা করার নির্দেশ প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন হলে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে: অর্থমন্ত্রী করোনা: ৭৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
১৪

দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

পদ্মা সেতুর ২৫তম স্প্যান সফলভাবে বসানো হয়েছে। শুক্রবার শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে বসানো হয়েছে স্প্যানটি। এর ফলে প্রমত্তা পদ্মায় স্বপ্নের সেতুর তিন হাজার ৭৫০ মিটার (পৌনে ৪ কিলোমিটার) দৃশ্যমান হলো।

এর আগে চলতি মাসের ১১ ফেব্রুয়ারি পদ্মা সেতুর ২৪তম স্প্যানটি বসানো হয়। এর ১০ দিনের মাথায় বসল ২৫তম স্প্যান।

এর আগে সকাল সাড়ে নয়টার দিকে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের মাওয়ার কন্সট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে তিয়ান-ই ক্রেনে করে ২৫তম স্প্যান ২৯ ও ৩০ নম্বর পিয়ারের কাছে নেওয়া হয়।

শুক্রবার বেলা তিনটার দিকে ‘৫-ই’ আইডি নম্বরের স্প্যানটি সেতুর জাজিরা প্রান্তের ২৯ ও ৩০ নম্বর পিয়ারের ওপর বসানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন সেতুর সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর।

হুমায়ুন কবীর আরও জানান, মোট ৪১টি স্প্যানের মধ্যে ৩৭টি স্প্যান কনস্ট্রাকশন সাইটে আছে, যার মধ্যে ২৫টি বসানো সম্পন্ন হলো।

ছয় দশমিক ১৫ মিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড সেতু নির্মাণের কাজ করছে।

পদ্মা সেতু তৈরি হলে দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থায় এক নতুন দিগন্তের সূচনা হবে এবং দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার প্রায় ছয় কোটি মানুষের জীবনযাত্রায় এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসবে। শুধু তাই নয়, রাজধানী ঢাকাসহ সমগ্র দেশের সঙ্গে দক্ষিণাঞ্চলের সরাসরি যোগাযোগ স্থাপিত হবে। জিডিপি দেড় থেকে দুই শতাংশ বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর