রোববার   ২০ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৪ ১৪২৬   ২০ সফর ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
৪৯৯

পিরোজপুরে ভাতিজিকে ধর্ষণ ও হত্যার অপরাধে চাচার মৃত্যুদন্ড

প্রকাশিত: ১ আগস্ট ২০১৯  

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় আপন ভাইয়ের মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে চাচার মৃত্যুদন্ড দিয়েছেন পিরোজপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল এর আদালত। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এ আদেশ দেন পিরোজপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক মোঃ মিজানুর রহমান। এসময় তাকে আরো ১ লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দেয়া হয়। দ-প্রাপ্ত আসামী হচ্ছেন জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার নলি তুলাতলী গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে নুর মোহাম্মদ (৪০)।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১০ সালের ২১ মার্চ আসামী তার আপন ভাইয়ের মেয়ে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী আমেনাকে (১৪) মিথ্যা কথা বলে বাড়ির পাশের একটি বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে হত্যার পর বাড়ির পাশের একটি খালে ফেলে দেয়। পরে স্থানীয়রা লাশ দেখতে পেয়ে ডাক চিৎকার দিলে আমেনার বাড়ির লোক এসে আমেনাকে দেখতে পায় এবং পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে এবং থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে । মামলারবাদী এবং আমেনার মা ফাতেমা বেগম বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় নুর মোহাম্মদকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করে।
এ ঘটনায় পুলিশ আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করার পর দীর্ঘ স্বাক্ষ্য প্রমানের পর আসামী দন্ডবিধির ১৬৪ ধারায় হত্যা ও ধর্ষণের ঘটনা স্বীকার করায় বিচারক এ রায় প্রদান করেন।
রাষ্ট্র পক্ষে নারী ও শিশু দমন নির্যাতন ট্রাইবুনালের পিপি আব্দুর রাজ্জাক খান বাদশা ও আসামী পক্ষে এ্যাডভোকেট কানাই লাল বিশ্বাস এ মামলা পরিচালনা করেন।
 

এই বিভাগের আরো খবর