• সোমবার   ২৫ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৭

  • || ০২ শাওয়াল ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
১৪

‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে একটি অনাকাঙ্খিত মৃত্যুও চান না’

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ১৯ মে ২০২০  

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের দেশে একটি অনাকাঙ্খিত মৃত্যুও চান না। তবে অন্য দেশের তুলনায় আমাদের দেশে করোনায় মৃত্যুর হার অনেক কম। তবু বলি আল্লাহ তুমি আর কষ্ট দিওনা। আমাদের রক্ষা কর। এক সময় কলেরায় গ্রামের পর গ্রামে হাজার হাজার মানুষ মারা গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন খাবার স্যালাইন তৈরি হওয়ার পর এখন কলেরা আর নেই। এইডস এর মত রোগ এখনো আছে। কিন্তু সতর্কতা অবলম্বন করায় এখন সেটা নিয়ন্ত্রণে। কাজেই ভয় না পেয়ে আমাদেরকে লড়াই করার মত মানসিকতা সৃষ্টি করতে হবে। সামাজিক দুরত্ব, হাত ধোয়া ও পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে হবে। কারণ যেহেতু এ রোগের প্রতিশোধক এখনো বের হয়নি।

সোমবার (১৮ মে) শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার সীমান্তবর্তী নয়াবিল ইউনিয়নের দাওধারা ইসলামিক মিশন প্রাঙ্গণে কর্মহীন বেকার শ্রমজীবি মানুষের মধ্যে নিজ তহবিল থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় সাবেক এই মন্ত্রী আরো বলেন, করোনা ভাইরাস সারা পৃথিবীতে মহামারি আকার নিয়েছে। এটি শুধু আমাদের দেশের সমস্যা নয়। বড় বড় দেশ এখন কাত হয়ে গেছে। তাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ ভাইরাস নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি এর সাথে বসবাস করার জন্য আমাদের তৈরি থাকতে হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে এবং দেশের অর্থনীতি বেগবান রাখতে নিরলস কাজ করছেন। তাকে সর্বাত্মক সহায়তা করতে হবে।

বেগম মতিয়া চৌধুরী উপস্থিত সবাইকে ইফতারের সময় ঠান্ডা পানি না খেয়ে গরম পানি খাওয়ার পরামর্শ দেন। রাতে শোবার আগে গরম পানিতে লবন দিয়ে গরগরা করলে অনেক উপকার হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এ সময় শেরপুরের পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম, নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,মো. আরিফুর রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার (নালিতাবাড়ী সার্কেল) মো. জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা, ফজলুল হক, ওয়াজ কুরুণী, ফারুক আহমেদ বকুল, গোপাল চন্দ্র সরকার প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিন বেগম মতিয়া চৌধুরী উপজেলার ১২ ইউনিয়ন একটি পৌরসভার ২ হাজার ৮৮ জন কর্মহীন মানুষ এবং নালিতাবাড়ী থানার ৮৮ জন পুলিশ সদস্যের প্রত্যেককে নগদ ২ শ টাকা করে আর্থিক সহায়তা করেন। এর আগে তিনি নকলা উপজেলার নয় ইউনিয়ন ও পৌরসভার ১ হাজার ৬০০ হতদরিদ্র কে এবং পুলিশের ৬০ জন সদস্যকে নগদ ২ শ করে টাকা প্রদান করেন। এছাড়া তিনি নালিতাবাড়ী ও নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একটি করে থার্মাল স্ক্যনার (জ্বর মাপার যন্ত্র) ২৫০টি মাস্ক, দুই হাজার সাবান প্রদান করেন।

রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর