বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
৫৮

বাগদাদির ওপর নজরদারি করা গুপ্তচর পাচ্ছে ২০০ কোটি টাকা

প্রকাশিত: ৩১ অক্টোবর ২০১৯  

আইএস প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদি নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। জানা গেছে, বাগদাদির সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) ভেতরেই গুপ্তচর নিয়োগ করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। আর সেই গুপ্তচরের সরবরাহ করা তথ্য বিশ্লেষণ করেই সিরিয়ায় অভিযান চালানো হয়। এবার গুপ্তচরবৃত্তির পুরস্কারও নাকি পেতে চলেছেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পাবেন সেই গুপ্তচর!

ওয়াশিংটনের পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাগদাদির চলাফেরা ও কার্যক্রমের ওপর নজর রাখার জন্য আইএসের এক সদস্যকেই গুপ্তচর হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। নিজের কাজ যথাযথভাবেই পালন করেছেন সেই গুপ্তচর, বাগদাদির চলাফেরা সংক্রান্ত খুঁটিনাটি সব তথ্য তিনি সরবরাহ করেছেন মার্কিন কর্মকর্তাদের কাছে। এমনকি বাগদাদির গোপন আশ্রয়স্থলের নিখুঁত তথ্যও পাচার করেছেন তিনি। সেসব তথ্য বিশ্লেষণ করেই গত শনিবার সিরিয়ায় বাগদাদির বিরুদ্ধে অভিযান চালায় যুক্তরাষ্ট্র। অতর্কিত সেই অভিযানে বাগদাদি নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে দেশটি।

ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনটিতে আরও বলা হয়েছে, সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশে বাগদাদির বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর সময় সেখানেই উপস্থিত ছিলেন সেই গুপ্তচর। অভিযানের দুদিন পর ওই এলাকা থেকে পরিবারসহ তাঁকে সরিয়ে নেওয়া হয়। তবে তাঁর নাগরিকত্ব সম্পর্কে নিশ্চিতভাবে কিছু জানা যায়নি। এক মার্কিন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সেই গুপ্তচর একজন সুন্নি আরব। আইএসের হাতে নিজের পরিবারের কিছু সদস্যের প্রাণহানি হওয়ায় তিনি আইএসের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তি শুরু করেন।

এর আগে বাগদাদির মাথার দাম ২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঘোষণা করেছিল যুক্তরাষ্ট্র, বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ২১১ কোটি টাকারও বেশি। বাগদাদির বিরুদ্ধে চালানো অভিযান সফল হওয়ায় এবার এই অর্থ পেতে চলেছেন সেই গুপ্তচর। নাম প্রকাশ না করার শর্তে যুক্তরাষ্ট্রের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, পুরস্কার হিসেবে ওই গুপ্তচরকে ২৫ মিলিয়ন ডলারের পুরোটাই দিয়ে দেওয়া হতে পারে। পুরোটা না দিলেও উল্লেখযোগ্য একটা অংশ যে তিনি পেতে চলেছেন, সেটি একপ্রকার নিশ্চিতই করে দিয়েছেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বেশ অনেক দিন ধরেই বাগদাদির ব্যাপারে তথ্য দিয়ে যাচ্ছিলেন সেই গুপ্তচর। কিন্তু এত দিন কোনো ব্যবস্থা নেয়নি তারা। কয়েক সপ্তাহ আগে পাওয়া বিশেষ কিছু তথ্যের পর তাঁদের মনে হয়েছে, এবার অভিযান চালানো যায়।

গত শনিবার সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় ইদলিব প্রদেশে অভিযান চালিয়ে বাগদাদিকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বাগদাদির আসল নাম ছিল ইব্রাহিম আওয়াদ ইব্রাহিম আল-বদরি। সংগঠিত ও নির্মম যুদ্ধক্ষেত্রের কৌশল ভালো জানা ছিল তাঁর। উত্তর বাগদাদের অদূরে সামারা এলাকায় ১৯৭১ সালে জন্মগ্রহণ করেন বাগদাদি। ২০১৪ সালে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস যখন ইরাকের মসুল শহর দখলে নিয়েছিল, তখন নিজেকে আইএসের মুখপাত্র হিসেবে ঘোষণা করেন তিনি।

এই বিভাগের আরো খবর