শুক্রবার   ১৮ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৩ ১৪২৬   ১৮ সফর ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
৪৩

বিএনপি-জামায়াতের আমলে হিন্দুদের উপর নির্যাতন করা হতো

প্রকাশিত: ২ অক্টোবর ২০১৯  

পিরোজপুর প্রতিনিধি: গৃহায়ন ও গনপূর্ত মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম বলেছেন, একমাত্র শেখ হাসিনার সরকারের সময়েই এদেশের হিন্দুরা সুন্দরভাবে  তাদের ধর্ম-কর্ম করতে পারেন। বিএনপি-জামায়াতের আমলে এদেশের হিন্দুদের নির্যাতন করা হয়। তাদের ধর্মীয় কর্মকান্ডে বাঁধা সৃষ্টি করা হয়। গত ২০০১ সালের  বিএনপি-জামায়াতের সময়ে তাদের (বিএনপি-জামায়াত) নেতা-কর্মীদের দিয়ে বহু নারীর সম্ভ্রম নষ্ট করা হয়েছে। এদেশের অনেক হিন্দুরা এলাকা ছেড়েছেন। তাদের বাড়ি-ঘর দখল করা হয়েছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দুদের মন্দির ভাঙ্গা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর)  দুপুরে উপজেলা কৃষি প্রশিক্ষন ইনেষ্টিটিউটের হলরুমে  মন্ত্রীর নিজস্ব তহবিল থেকে   উপজেলার বিভিন্ন মন্দিরে আর্থিক সহযোগীতা প্রদান অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।  
এসময় মন্ত্রী আরো বলেন, দেশের স্বাধীনতার সময় দেশের স্বাধীনতা বিরোধী চক্র স্বাধীনতাকামী এদেশের বহু হিন্দুদের উপর চরম নির্যাতন করেছে। আর দেশ স্বাধীনের পরে এসব স্বাধীনতা বিরোধী চক্রকে পরবর্তী রাষ্ট্র প্রধানরা  পর্যাক্রমে জিয়াউর রহমান , এরশাদ ও খালেদা জিয়া পূর্নবাসন করেছেন। আত্মস্বীকৃত রাজাকার ও খুনী  গোলাম আজমদের মন্ত্রী করে গাড়িতে জাতীয় পতাকা দিয়ে জাতীয় পতাকার সম্মান নষ্ট করেছেন।
ওই দিন বেলা ১২টায় বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদের  উপজেলা সভাপতি মাষ্টার সুখরঞ্জন বেপারীর সভাপতিত্বে ও জেলা পরিষদের সদস্য তুহিন হালদার তিমিরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত ওই অনুষ্ঠানে মন্ত্রীর নিজস্ব তহবিল থেকে  উপজেলার ১১৮টি মন্দিরের প্রতিটিতে ১হাজার টাকা করে প্রদান করেন। এ চেক প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন  পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার মো. হায়াতুল ইসলাম খান, জেলা পরিষদের প্রধান  নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খান, উপজেলা চেয়ারম্যান মাষ্টার অমূল্য রঞ্জন হালদার, কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় নেতা আতিয়ার রহমান চৌধুরী নান্নু প্রমুখ।
এ সময় মন্ত্রী  পিরোজপুর জেলা পরিষদের উদ্যোগে দেয়া উপজেলার সদর মন্দিরের জন্য ১০ হাজার টাকা ও বাকী উপজেলার ১১৭টি মন্দিরের প্রত্যেকটিতে ১ হাজার টাকা করে অনুদানের চেক বিতরন করেন। এ ছাড়া প্রতি মন্দিরে ত্রান ও দূর্যোগ ব্যাপস্থাপনা মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে প্রতি মন্দিরের জন্য ৫  শত কেজি করে চাল বিতরন করা হয়।
এ সময়  উপস্থিত ছিলন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ আ. লদিফ, পিরোজপুর সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও সরাকারী সোহরাওয়ার্দী কলেজের ভিপি এসএম বায়েজিদ হোসেন, নাজিরপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জু, জেলা পরিষদের সদস্য মো. সুলতান মাহমুদ খান প্রমুখ।    
পরে মন্ত্রী ওই দিন বিকালে  পিরোজপুর জেলা সার্কিট হাউজের হলরুমে জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেনের সভাপতিত্বে  জেলার সদর উপজেলার বিভিন্ন মন্দিরে নিজস্ব অর্থায়নে, জেলা পরিষদ ও ত্রান দূর্যগ ব্যাবস্থাপন মন্ত্রনালয়ের অনুদান প্রদান করেন।

 

এই বিভাগের আরো খবর