• বৃহস্পতিবার   ১৬ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ৩১ ১৪২৭

  • || ২৫ জ্বিলকদ ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
১২

বেকার সময় কাটাচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টারা

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০২০  

দীর্ঘদিন ধরে দলীয় কর্মসূচি না থাকায় এবং কেউ কেউ অবহেলা ও অভিমানে বেকার সময় কাটাচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্যরা। 

দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সর্বশেষ ২০১৬ সালের ১৯ মার্চ ষষ্ঠ কাউন্সিলের পর বিএনপির গুরুত্বপূর্ণ পদে ৭৩ জনের নাম ঘোষণা করা হয়।

দলীয় সূত্রমতে, সবশেষ কাউন্সিলের পর থেকে বিএনপি চেয়ারপার্সনের কারামুক্তির আন্দোলন কর্মসূচি ছাড়া তেমন কোনো কর্মসূচি দিতে পারেনি দলটি। যদিও আন্দোলন ব্যর্থ হয়েছে। ফলে দলের অন্যান্য পদ-পদবির নেতাদের মতই নির্বিকারভাবে দীর্ঘদিন ধরে বেকার সময় কাটাচ্ছেন চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্যরা।

এদের মধ্যে জয়নাল আবদিন ফারুক, হাবিবুর রহমান হাবিব, আব্দুস সালাম, আতাউর রহমান ঢালী, আমান উল্লাহ আমানসহ হাতে গোনা কয়েকজন নেতা কিছু ছোট-ছোট কর্মসূচি ও টিভি টকশোতে বিভিন্ন সময় অংশগ্রহণ করে থাকেন। এছাড়া বাকি সবাই দলে প্রায় নিষ্ক্রিয়। এছাড়াও অনেকে অভিমানী হয়ে কর্মসূচি থেকে দূরে রয়েছেন। তারা ইচ্ছা করেই কোনো কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছেন না। কেননা তাদেরকে সঠিকভাবে মূল্যায়ন করা হয় না বলেও জানা গেছে সূত্র থেকে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপদেষ্টা মণ্ডলীর অভিমানী এক সদস্য বলেন, সারাজীবন বিএনপির রাজনীতি করেছি। আজ শেষ বেলায় এসে প্রতিনিয়ত হতাশায় নিমজ্জিত হচ্ছি।

তিনি বলেন, এই দলের ভবিষ্যত কী তাই এখন বুঝতে পারছি না। দলের কোনো সাংগঠনিক কার্যক্রম নেই। আমাদের সঙ্গে কোনো আলাপ-আলোচনা নেই। কোনো দিক-নির্দেশনা বা পরিকল্পনা নেই। তাই আমরা এখন বাসায় অবস্থান করছি। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হচ্ছি না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেকজন উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য বলেন, আমরা এখন পয়সাওয়ালদের কাছে হেরে যাচ্ছি। তিনি বলেন, বিএনপির রাজনীতি এখন পয়সাওয়ালাদের হাতে। এ দলে কোনো সিনিয়ারিটি বা জুনিয়ারিটি নেই। টাকার কাছে বিক্রি হয়ে যাচ্ছে পদ-পদবি। অনেক জুনিয়র নেতাকেও টাকার বিনিময়ে উচ্চ পদের দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে।

হতাশার সুর নিয়ে তিনি বলেন, ভেবেছিলাম বেগম জিয়া দীর্ঘদিন পর কারামুক্তি হয়ে আমাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে পরামর্শ করবেন। কিন্তু আজ তিন মাস অতিবাহিত হলেও তিনি এখনো রাজনীতিতে সক্রিয় নন। 

রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর