• শনিবার   ২৪ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৯ ১৪২৭

  • || ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

পিরোজপুর সংবাদ

বৈরুত বিস্ফোরণে নিহত বেড়ে ১০০

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ৫ আগস্ট ২০২০  

ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপেছে লেবাননের রাজধানী বৈরুত। বন্দরের কাছের এই বিস্ফোরণে ১০০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৪ হাজার মানুষ। আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

একসঙ্গে এত আহত মানুষের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে বৈরুতের হাসপাতালগুলো। লেবাননের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদেরকে তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে এসব আহত মানুষকে সেবা করার জন্য আহ্বান জানিয়েছে। অনেক হাসপাতাল স্থানের সংকুলান না হওয়ায় আর কোনো রোগী নিতে পারছে না।

লেবাননের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ ফাহমী আল-জাজিরাকে বলেছেন, বিস্ফোরণের সঠিক কারণ জানা যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, বন্দরের একটি গুদামে সংরক্ষিত অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট থেকে এই বিস্ফোরণ ঘটতে পারে।

দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী হামাদ হাছান বলেছেন, প্রাথমিক হিসাবে ৭৮ জন নিহত ও ৪ হাজার আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে।

মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) দুপুরে লেবাননের রাজধানী বৈরুতে শক্তিশালী এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে শহরজুড়ে আতঙ্ক তৈরি হয়। শহরের বাসিন্দারা বলেছেন, বিস্ফোরণে তাদের শহরটি ভূমিকম্পের মতো কেপে ওঠে।

ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ভিডিওতে দেখা যায়, বৈরুতের বন্দর এলাকা থেকে বড়ু গম্বুজ আকারে ধোঁয়া উড়ছে, এর কিছুক্ষণের মধ্যে বিকট বিস্ফোরণে গাড়ি, ভবন উড়ে যেতে দেখা যায়। ভিডিওতে মানুষের চিৎকার ও ছুটোছুটি করতে দেখা যায়। বাড়িঘরের জানালার কাচ ও বেলকনি ভেঙেও অনেকে আহত হন।

লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব বুধবার রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছেন। তিনি এই বিস্ফোরণকে জাতীয় দুর্যোগ ঘোষণা করে এই ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চেয়েছেন।

যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ইরান, ইসরায়েল এই দুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে লেবাননকে সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রও বলেছে, তারা পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব বলেছেন, বিস্ফোরণের জন্য যারাই দায়ী হোক, তাদের চরম মাশুল দিতে হবে।

রাসায়নির গুদাম থেকে এই বিস্ফোরণের ধারণা করলেও তদন্ত শেষ হওয়ার আগে এই বিষয়ে স্পষ্ট কিছু বলতে চাননি প্রধানমন্ত্রী।