রোববার   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬   ১০ রবিউস সানি ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
১১

মঙ্গলের নতুন তথ্যে চিন্তিত বিজ্ঞানীরা

প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর ২০১৯  

মঙ্গলে থাকা সম্ভব কি-না তা নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা এখনো চলছে। সম্প্রতি নাসার পাঠানো কিউরিওসিটি রোভার অক্সিজেনের স্তরের সব তথ্য পাঠিয়েছে পৃথিবীতে। তাতে দেখা যাচ্ছে, অক্সিজেনের মাত্রা ঋতুভেদে বদলাতে থাকে মঙ্গলে। যা অক্সিজেন রহস্যকে আরো ঘনীভূত করছে। তাই লালগ্রহ নিয়ে বিজ্ঞানীদের চিন্তা বাড়ছেই।

অক্সিজেনের এমন ‘আয়নাবাজি’ নিয়ে বিজ্ঞানীদের একাংশ ব্যাখ্যা দিয়েছেন। তারা বলছেন, বসন্ত এবং গ্রীষ্মকালে মঙ্গলগ্রহের বায়ুতে অক্সিজেনের পরিমাণ বেড়ে যায় প্রায় ৩০ শতাংশ। যা ভাবাচ্ছে বিজ্ঞানীদের। মনে করা হচ্ছে, ভূতাত্বিক কোনো কারণে এমনটা হতে পারে। আর তাই যদি হয়, তাহলে প্রাণের অস্তিত্ব নিয়েও গবেষণা একটু দৃঢ় হল বলাই যায়।

কয়েকজন বিজ্ঞানী জানিয়েছেন, মঙ্গলের উত্তরভাগে বছরের শুরুতে অক্সিজেনের মাত্র বেড়ে যায়; কিন্তু বছর শেষে তা অনেকটা কমে যায়। অক্সিজেনই নয়; কার্বন-ডাই-অক্সাইড, নাইট্রোজেন, অক্সিজেন, মিথেন এবং নিষ্ক্রিয় গ্যাস আর্গনের ভরপুর মঙ্গলগ্রহ। মঙ্গলের বায়ুমণ্ডলে সম্প্রতি অক্সিজেনের মাত্রার তারতম্য নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। কারণ, রসায়নের সমস্ত সমীকরণ এই পর্যায়ে এসে আর মিলছে না।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, সূর্যের তাপে কার্বন-ডাই-অক্সাইড ও জল ভেঙে অক্সিজেন তৈরি হচ্ছে মঙ্গলে। যার কারণে অক্সিজেনের মাত্রার কম-বেশি হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। সূর্যের প্রকট তাপে জল বাষ্পীভূত হয়ে বায়ুতে অক্সিজেন মুক্ত করছে। তবে ঋতুর সঙ্গে কী সম্পর্ক? এই প্রশ্নটাই ভাবাচ্ছে বিজ্ঞানীদের।

এই বিভাগের আরো খবর