• বৃহস্পতিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৭

  • || ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
‘প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে’ পার্বত্য শান্তিচুক্তি বিশ্বে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে: রাষ্ট্রপতি সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সর্বত্র শান্তি বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর ব্যান্ডউইথ কিনবে সৌদি-ভারত-নেপাল-ভুটান, প্রধানমন্ত্রীর উচ্ছ্বাস মহান বিজয়ের মাস শুরু এইডস রোগ নির্মূল করার জন্য সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ: প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে রেল যোগাযোগ গড়ে তোলা হবে: প্রধানমন্ত্রী ঢাকা থেকে পায়রাবন্দর পর্যন্ত রেললাইন নিয়ে যাব: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্কের পিছনে ভিন্ন উদ্দেশ্য আছে- কাদের

মামলার জট কমাতে আদালতের ছুটি কমাতে হবে : অ্যাটর্নি জেনারেল

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২১ নভেম্বর ২০২০  

অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেছেন, ‘বাংলাদেশে মামলা জট অনেকদিন যাবত আছে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময় যেহেতু আদালত বন্ধ ছিল সে কারণে নতুন মামলা কম হয়েছে। যেসব মামলার জট রয়েছে, আদালত যখন খুলে যাবে তখন আদালতের ছুটি কমাতে হবে। সে সময়ের মধ্যে কর্মদিবস বাড়িয়ে মামলা জট কমিয়ে এনে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেয়ে আনার চেষ্টা করা হবে।’

আজ শনিবার দুপুর ১২টায় গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে নবনিযুক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধু ও ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তাঁর পরিবারের শহিদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করেন। পরে তিনি গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন।

এ সময় রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে বলেন, ‘পলাতক আসামিদের দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হচ্ছে। তারা যেসব দেশে আছে সেসব দেশের আইনি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে তাদের ফিরিয়ে আনতে হবে। আইনি প্রক্রিয়া চলমান আছে। এটি শেষ হলে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।’

শ্রদ্ধা নিবেদন ও পরিদর্শন বইয়ে স্বাক্ষরের সময় অ্যাটর্নি জেনারেলের সহধর্মিণী মিসেস আফসারী আমিন শিবলী উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক, শেখ সাইফুজ্জামান, মো. সারোয়ার হোসেন বাপ্পি, ওয়ায়েস আল হারুনী, মো. মনিরুল ইসলাম, মো. মাইনুল ইসলাম, বি এম রাফেল, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মাহফুজুর রহমান লিখন, আনিসুর রহমান, শাহনেওয়াজ, আবদুল মান্নান মান্না, শাহীন মৃধা, সাইফুল আলম, মো. সাফায়েত হোসেন জামিল, ফেরদৌসী আক্তার (কল্পনা), কোহিনূর বেগম লাকী, তামান্না ফেরদৌস, আনিসুল মাওলা আরজু, রওশান আরা মনি, সাবিনা পারভীন।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সমিতির সাবেক সম্পাদক ড. বশির আহমেদ ও ড. মোমতাজ উদ্দিন মেহেদী, ব্যারিস্টার শফিকুল ইসলাম। আরো উপস্থিত ছিলেন আবদুল নুর দুলাল, শাহ মঞ্জুরুল হক মো. মোতাহার হোসেন সাজু, আবদুল আলীম মিয়া জুয়েল, শেখ মোহাম্মদ মোর্শেদ, ব্যারিস্টার এ জে এম রবিউল হাসান সুমন, মো. আবদুর রাজ্জাক, কাজী সামসুল হাসান শুভ, ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ ফারুক, মুন্সি মনিরুজ্জামান, শামীম সরদার, মো. মশিউর রহমান হুমায়ুন কবির, চঞ্চল বিশ্বাস, রানী মুখার্জি প্রমুখ। এ সময় গোপালগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নেতারাও উপস্থিত ছিলেন।