রোববার   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬   ১০ রবিউস সানি ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
২১

মুমিনুলদের আগমনে কলকাতায় সাজ সাজ রব

প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর ২০১৯  

গোলাপি বলে দিবা-রাত্রির টেস্ট আয়োজনে সাজ সাজ রব এখন কলকাতায়। পশ্চিমবঙ্গ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের ব্যবস্থাপনায় (সিএবি) ঐতিহাসিক টেস্ট আয়োজনে চলছে নানা প্রস্তুতি। মুমিনুল হকের টেস্ট দলটিও নিজেদের প্রস্তুতি সারতে পৌঁছে গেছে কলকাতায়।  

 

আগামী ২২ নভেম্বর বাংলাদেশ ও ভারত প্রথমবারের মতো খেলতে নামবে দিবা-রাত্রির টেস্ট। তাও আবার ঐতিহ্যবাহী স্টেডিয়াম ইডেন গার্ডেনসে। প্রথমবার বলে দুই দলের ক্রিকেটারের মাঝে গোলাপি বলে টেস্ট খেলার রোমাঞ্চ বিরাজ করছে। তবে ইন্দোরে প্রথম টেস্ট ম্যাচ তিন দিনে হারের পর গোলাপি বলের টেস্ট নিয়ে রোমাঞ্চের পাশাপাশি ভয়ও কাজ করছে বাংলাদেশের। মিশ্র অনুভূতি নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে কলকাতায় পা রেখেছে সফরকারীরা।

হোটেলে প্রবেশের সময় মুমিনুল।

ইন্দোরে বাংলাদেশ দল যখন লাল বলের অনুশীলন নিয়ে ব্যস্ত, তখন ভারতীয় ক্রিকেট দল গোলাপি বলে অনুশীলন করেছে। সবমিলিয়ে বিরাট কোহলির দল গোলাপি বলে তিন/চারটি সেশন করেছে। প্রথম টেস্ট আগেভাগে শেষ হওয়ায় এখানে দুদিন অনুশীলন করেছে বাংলাদেশও। দুদিন কৃত্রিম আলোয় নিজেদের ঝালিয়েছেন তারা। তবে প্রথম দিনের অনুশীলন ঐচ্ছিক থাকায় সবাই উপস্থিত ছিলেন না। সোমবার শেষ দিনের অনুশীলনে পুরো দলের উপস্থিতি ছিল। সেদিন ব্যাটিং, বোলিংয়ের পাশাপাশি ফিল্ডিংও করেছেন ক্রিকেটাররা।

কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে আগামী দুই দিন অনুশীলন করে ২২ নভেম্বর গোলাপি বলের টেস্ট খেলতে নামবে মুমিনুল হকের দল। কেবল বাংলাদেশের জন্যই নয়, স্বাগতিক ভারতের জন্যও এটি প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্ট।

দিবা-রাত্রির টেস্ট ঘিরে কলকাতা এখন উৎসবের নগরী

এদিকে সিএবির উদ্যোগে গঙ্গাপাড় সেজে উঠেছে গোলাপি সাজে। হাতে গোনা আর মাত্র কয়েকটা দিন, ক্যালেন্ডারের পাতা ওলটানোর আগেই সাজ সাজ রব এখন গোটা ইডেন জুড়ে!

এই প্রথম ভারতের মাটিতে টেস্ট ক্রিকেটে গোলাপি বলের ব্যবহার হতে চলেছে। ইডেনের সবুজ ঘাস এই প্রথম গোলাপি বলের ছোঁয়া পাওয়ার অপেক্ষায়। পাশাপাশি ইডেন জুড়ে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। আয়োজনে কোনরকম খামতি রাখতে চাইছে না ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। নতুন সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী ইতোমধ্যেই কিছু পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন।

এই টেস্টকে ঘিরে অনেক রথী-মহারথীদের মিলনমেলা বসছে ইডেনে। ঐতিহাসিক ইডেন টেস্ট ঘণ্টা বাজিয়ে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়া আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে থাকবেন কিংবদন্তি দাবাড়ু বিশ্বনাথ আনন্দ, টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা, ব্যাডমিন্টনের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন পি ভি সিন্ধু, ছয়বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন মুষ্টিযোদ্ধা মেরি কম এবং দেশের একমাত্র অলিম্পিক সোনাজয়ী অভিনব বিন্দ্রা। থাকবেন কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও এক সময়ের সতীর্থ শচীন টেন্ডুলকারকারসহ সাবেক বর্তমান অনেক ক্রিকেটাররা। এছাড়া ২০০০ সালের নভেম্বরে এই ভারতের বিপক্ষে অভিষেক টেস্ট খেলা বাংলাদেশ দলের সদস্যরাও উপস্থিত হবেন।

এই বিভাগের আরো খবর