• মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৪ ১৪২৬

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
যারা সাহায্য চাইতে পারবে না তাদের তালিকা করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসকরা কেন চিকিৎসা দেবে না, এটা খুব দুঃখজনক : প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নীতিমালা করার নির্দেশ প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন হলে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে: অর্থমন্ত্রী করোনা: ৭৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
২১

যুবকদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে ইউএনডিপির সহায়তা চাইলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বাংলাদেশের শিক্ষিত যুব সমাজের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য ইউএনডিপির সহায়তা চেয়েছেন।

গতকাল রাজধানীর একটি হোটেলে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন উপলক্ষে ইউএনডিপি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতাকালে তিনি এ সহায়তা চান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশের ৪৯ শতাংশ মানুষের বয়স ২৫ বছরের নিচে। মোট জনগোষ্ঠীর ৭০ ভাগ যুবক। এই জনগোষ্ঠীকে শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সরকার দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করতে চায়, যাতে তারা দেশে ও বিদেশে কাজ করতে পারে। তাছাড়া তারা যেন চাকুরি খোঁজার পরিবর্তে উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারে। বাংলাদেশে প্রায় ছয় লাখ আইটি ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করছে। এখন সারা পৃথিবী তাদের কর্মক্ষেত্র এবং তারা নিজের ঘরে বসেই তা করতে পারে।

ড. মোমেন বলেন, উন্নয়ন সহযোগী দেশ ও সংস্থাগুলো বিভিন্ন উন্নয়নশীল দেশের জন্য প্রতি বছর ব্যয় করে প্রায় ১৫৬ বিলিয়ন ডলার, এলডিসিভূক্ত ৪৮টি দেশের জন্য ব্যয় করে প্রায় ৩৮ বিলিয়ন ডলার, যা এসডিজি’ অর্জনে প্রয়োজনের তুলনায় প্রায় শতকরা ৮ ভাগ। একারণে এসডিজি’র লক্ষ্য অর্জনে বেসরকারি খাত, এনজিওসহ দেশি-বিদেশি অংশীদারিত্ব চায় সরকার।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী উল্লেখ করেন, এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় ৪৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের জিডিপি সর্বোচ্চ, যা বর্তমানে ৮ দশমিক ১৫ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

তিনি বলেন, যুবক বঙ্গবন্ধু ভাষা আন্দোলনের শুরুতে পাকিস্তানের শাসক গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। ঠিক ৫১ বছর পরে ১৯৯৯ সালে বাংলাকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইউএনডিপির ইউএন বাংলা ফ্রন্টেরও উদ্বোধন করেন। তিনি বাংলায় প্রকাশিত ‘মানব উন্নয়ন প্রতিবেদন ২০১৯’ এর মোড়ক উন্মোচন করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেব বক্তৃতা করেন জাতিসংঘের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল কান্নি উইনারাজা।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর