• সোমবার   ১৭ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৮

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

পিরোজপুর সংবাদ

যেভাবে মিষ্টি আলু খাওয়া বেশি স্বাস্থ্যকর

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ৩ মে ২০২১  

মিষ্টি আলু খেতে যেমন সুস্বাদু তেমনি পুষ্টিতেও পরিপূর্ণ। অনেকেরই পছন্দের তালিকায় জায়গা করে আছে মিষ্টি আলু। কেবল খেতেই সুস্বাদু নয়, মিষ্টি আলু আমাদের অনেক কঠিন রোগ থেকেও মুক্তি দেয়। তাইতো মিষ্টি আলুকে বলা হয় ‘সুপার ফুড’। মূলত অসংখ্য পুষ্টিগুণের কারণেই এটিকে এই নামে ডাকা হয়।

এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ বিটা ক্যারটিন, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি৬, ফাইবার।

ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন-এর মতে, একটি মিষ্টি আলুতে ১০০ এর বেশি ভিটামিন এ রয়েছে, যা প্রতিদিনের ভিটামিনের চাহিদা পূরণ করে থাকে। হাত-পায়ের আঙুল ফোলা কমানো, প্রসাবের সমস্যা দূর করাসহ বিভিন্ন রোগের চিকিৎসার জন্য মিষ্টি আলুর পাতা ও মূল ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

চলুন এবার জেনে নেয়া যাক যেভাবে মিষ্টি আলু খাওয়া বেশি স্বাস্থ্যকর সে সম্পর্কে বিস্তারিত-

কীভাবে খাবেন?

এতো পুষ্টিগুণসম্পন্ন খাদ্যটি কীভাবে খেলে পুষ্টি উপাদানগুলো ঠিকঠাকভাবে পাবেন, তা জানাটা খুব জরুরি। রান্না করে বা শুধু সিদ্ধ করে মিষ্টি আলু খাওয়া যায়। তবে যেভাবেই খাওয়ার উপযোগী করুন না কেন, বেশিক্ষণ সময় নেয়া যাবে না। সিদ্ধ করা মিষ্টি আলুতে সবচেয়ে ভালোভাবে পুষ্টি উপাদানগুলো পাওয়া যায়।

যেভাবে সিদ্ধ করা স্বাস্থ্যসম্মত

খোসাসহ মিষ্টি আলুকে এক বা দুই টুকরা করে কেটে নিন। এবার একটি পাত্রে পানি নিয়ে তাতে আলুর টুকরোগুলো সাত মিনিট ধরে সিদ্ধ করুন। সাত মিনিট সিদ্ধ করলে মিষ্টি আলুর সবচেয়ে ভালো স্বাদ পাওয়া যায় এবং এর পুষ্টিগুণ বৃদ্ধি পায়।

হালকা সিদ্ধ মিষ্টি আলু

যদি আরও একটু স্বাদ আনতে চান, তাহলে এর সঙ্গে দারচিনি, লবঙ্গ এবং জায়ফল দিয়ে নিন। এতে করে স্বাদ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পুষ্টিগুণও বাড়বে।

খেতে পারেন পুড়িয়েও

২০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ৫ মিনিট পুড়িয়েও খেতে পারেন মিষ্টি আলু। গবেষণায় দেখা গিয়েছে এভাবে প্রস্তুতকৃত মিষ্টি আলুতে বিটা-ক্যারোটিন আলুর সর্বত্র সঠিক মাত্রায় অবস্থান নিতে পারে।

তাহলে আর দেরি কেন? আজ থেকেই দৈনিক খাদ্যতালিকায় যুক্ত করুন পুষ্টিতে ভরপুর এই মিষ্টি আলু।