• মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৩ ১৪২৬

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নীতিমালা করার নির্দেশ প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন হলে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে: অর্থমন্ত্রী করোনা: ৭৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান শেষ হলো পদ্মাসেতুর সবক’টি পিলার বসানোর কাজ
৫১১

রাজাকার পুত্রকে মনোনয়ন দেয়ায় পিরোজপুর বিএনপিতে বিভক্তি

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ৪ ডিসেম্বর ২০১৮  

পিরোজপুর-১ (পিরোজপুর সদর-নাজিরপুর-স্বরূপকাঠী) আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আমরণ কারাদণ্ডপ্রাপ্ত দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ছেলে শামিম সাঈদীকে মেনে নিতে নারাজ নাজিরপুর উপজেলা বিএনপি। গতকাল সোমবার উপজেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় নেতাকর্মীরা একথা জানান।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সভায় উপজেলার নয়টি ইউনিয়নের বিএনপির সভাপতি-সম্পাদকসহ সহযোগী ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশ নেয়।

সভায় নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‌‘সাঈদী পুত্র শামীম সাঈদীকে মনোনয়ন দেওয়া হলে আমাদের নিশ্চিত ভরাডুবি হবে। কেননা এখানে তার কোনো ভোট নাই। তা ছাড়া তার বাড়ি পিরোজপুর-২ নির্বাচনী এলাকার জেলার ইন্দুরকানি উপজেলায়। সেখানে প্রশাসনের চাপের মুখে মাঠে কাজ করতে পারবে না দলের নেতাকর্মীরা।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপিতে ক্লিন ইমেজের প্রার্থী রয়েছেন। সমালোচনার উর্ধ্বে থাকা প্রার্থী হলে আমাদের জন্য ভালো হয়। সাঈদীর ছেলে রাজাকার পুত্র হিসেবে সমলোচিত হওয়ায় নির্বাচনী মাঠে আমাদের সমস্যা হবে। এ কথা আমরা রেজুলেশনের মাধ্যমে কেন্দ্রেও অবহিত করেছি।’

এ ব্যাপারে উপজেলা বিএনপির জ্যেষ্ঠ সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সাঈদীর বাড়ি পিরোজপুর-২ আসনে ও জেলার ইন্দুরকানী উপজেলায়। তাই সেখানে তাদের নিজস্ব ভোট ব্যাংক থাকা সত্ত্বেও তারা মহাজোট প্রার্থীর কাছ থেকে বড় অঙ্কের টাকা নিয়ে এ আসনের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে এসেছে। আমি তার পক্ষে কাজ করতে রাজি না। ’ এ সময় উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মো. মোতাহার হোসেন মোল্লা, দীর্ঘা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. খায়রুল কবির, মাটিভাঙ্গা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম হাসান রুনু, উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব মো. হাফিজুর রহমান লায়েক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। সভায় বক্তারা সাঈদীর ছেলেকে জোটের প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত মনোনয়ন দেওয়া হলে দলীয় কাজ থেকে বিরত থাকার কথা জানান।

পিরোজপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর