শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৫ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
১৩

শরতের আকাশে মেঘে মেঘে স্বপ্ন ভাসে

প্রকাশিত: ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

 

 কাশফুল, পরিষ্কার নীল আকাশ আর সবুজ মাঠ- শব্দগুলো শুনলেই মনে আসে ঋতুর রানি শরতের নাম। ক’দিন আগেই মহাসমারোহে আগমন ঘটেছে তার। বাংলার প্রকৃতিতে শরতের আবির্ভাব আবারও মুগ্ধ করেছে আমাদের।
কালের পরিক্রমায় তৃতীয় ঋতু শরৎ। থাকে ভাদ্র ও আশ্বিন মাস জুড়ে। খ্রিষ্টীয় পঞ্জিকা অনুসারে মধ্য আগস্ট থেকে মধ্য অক্টোবর পর্যন্ত এ ঋতুর পথচলা। শরৎকে বলা হয় শুভ্রতার প্রতীক! সাদা কাশফুল, শিউলি, স্নিগ্ধ জ্যোৎস্না, দিনভর আলো-ছায়ার খেলা- এসব মিলেই তো শরৎ!
ভাদ্রের শুরু থেকেই শরতের আবির্ভাব বেশ লক্ষণীয়। এর স্নিগ্ধতা এক কথায় অসাধারণ! জলহারা শুভ্র মেঘের দল যখন নীল, নির্জন, নির্মল আকাশে পদসঞ্চার করে, তখনই বুঝতে পারি- শরৎ এসেছে। শরতের আগমন সত্যিই মধুর!
গ্রীষ্মের কাঠফাটা রোদ আর বর্ষার অঝোরধারায় শ্রাবণ ঢলের পর আসে শরতের আলোছায়ার খেলা; এই মেঘ, এই বৃষ্টি, তো কিছুক্ষণ পরই রোদ। 
শরতের অন্যতম বড় আকর্ষণ কাশফুল! নদীতীরে, বনের প্রান্তে কাশফুলের রাশি অপরূপ শোভা ছড়ায়। কাশফুলের এ অপরূপ সৌন্দর্য পুলকিত করেনি এমন মানুষ খুঁজে মেলা ভার! তাই তো শিশু-কিশোরেরা আবেগময় হয়ে ছুটে বেড়ায় সেই কাশের বনে। হাতে তুলে নেয় গুচ্ছ গুচ্ছ সাদা ফুল।
গাছে গাছে শিউলির মন ভোলানো সুবাসে অনুভূত হয় শরতের ছোঁয়া। মেঘহীন আকাশে গুচ্ছ গুচ্ছ কাশফুলের মতো সাদা মেঘের ভেলা কেড়ে নেয় মন। তাই তো উৎপল সেন লিখেছিলেন, ‘আজি শরতের আকাশে মেঘে মেঘে স্বপ্ন ভাসে।’