বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে সজাগ থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ভান্ডারিয়ায় ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস উপলক্ষে র‌্যালী অনুষ্ঠিত মঠবাড়িয়ায় ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস উপলক্ষ্যে র‌্যালী ও আলোচনা সভা ভারতের উদ্যোক্তাদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে দায়িত্বশীল হতে হবে: স্পিকার তৃতীয় টার্মিনাল নির্মাণ হলে সেবা পাবে আরও ১২ মিলিয়ন যাত্রী মালিকের গাফিলতিতে কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ড: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানালেন ট্রাইব্যুনাল রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে দেশ নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ পাবে ৬০ বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন: ড. কামাল-রীভা গাঙ্গুলির বৈঠক
১০১

স্বরূপকাঠীতে শিল্প নগরীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

প্রকাশিত: ৬ আগস্ট ২০১৯  

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ বরিশাল বিভাগের আওতাধীন পিরোজপুরের স্বরূপকাঠীতে স্থাপিত ১৯৬১ সনের ৮আগস্ট ২৪.৭৪ একর সম্পত্তি অধিগ্রহণ করে  শিল্প নগরী (বিসিক) প্রতিষ্ঠিত হয়। এ শিল্পে মোট ১৬৭টি প্লট এর মধ্যে উন্নত প্লট সংখ্যা ১৩৪টি, অন্নুনত প্লট সংখ্যা ৩৩টি, বরাদ্দকৃত প্লট সংখ্যা ১২৫টি এবং বরাদ্দের অপেক্ষায় রয়েছে ৪২টি। বিসিক নগরীতে মোট ৯৫টি শিল্প ইউনিটের মধ্যে চালু ইউনিট ৬৯টি, রুগ্ন ইউনিট ৭টি, ও বাস্তবায়নাধীন ১৯টি। দীর্ঘদিন ধরে ২১টি শিল্প প্রতিষ্ঠান তারা বিসিক এর নিয়ম-কানুন না মেনে সরকারের রাজস্ব আয় ফাঁকি দিয়ে তাদের ব্যবসা পরিচালনা করছেন। এসব প্রতিষ্ঠানগুলোকে বহুবার তাদের নোটিশ দেয়া সত্ত্বেও তারা কোন কর্ণপাত না করায় নেছারাবাদ শিল্পনগরীর ম্যানেজার জনাব হারুনুর রশীদ এ ব্যপারে উপর মহলে অবহিত করেন। তারই ধারাবাহিকতায় আজ মঙ্গলবার সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত অবৈধ ২১টি প্রতিষ্ঠানের উপর উচ্ছেদ অভিযান চলে। এ সময় জনাব এ, বি, এম আব্দুর রহমান  (জেলা শিল্প নগরী ম্যানেজার) এর উদ্দ্যোগে ম্যাজিষ্ট্রেট মেহেদী হাসান সহকারি কমিশনার (ভুমি) এর নেতৃত্ত্বে প্রশাসনের সহযোগীতায় ২১টি স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা সম্পন্ন করা হয়। উচ্ছেদ অভিযানের ম্যাজিষ্ট্রেট জনাব মেহেদী হাসান সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন বর্তমান সরকারের উন্নয়ন ধারাবাহিকতা বজায় রাখা ও গণমানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে আমাদের এই অভিযান। তিনি আরো বলেন এখানে আমরা অবৈধ ২১টি প্লট এর মধ্যে ১৯টি প্লট উচ্ছেদ করি এবং ২টি প্লট মামলাধীন থাকায় সীলগালা করি। তবে উচ্ছেদ অভিযানের ক্ষতিগ্রস্তরা তারা শিল্প আইনের নিয়ান-নীতি অনুয়ায়ী আবেদন করলে আগামীতে নতুন ভাবে বৈধ ভাবে শিল্প প্রতিষ্ঠান বরাদ্দ দেয়া পেতে পারে। জেলা শিল্প নগরীর ম্যানেজার তার বক্তব্যে বলেন ক্ষুদ্র, কুটির, মাইক্রো ও মাঝারি এই ৪ প্রকার শিল্পের বিকাশ ঘটিয়ে কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে ও শিল্প বিকাশে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছেন।
 

এই বিভাগের আরো খবর