• বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ১১ ১৪৩১

  • || ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ

সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসন জনগণের কল্যাণে কাজ করে

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৬ জানুয়ারি ২০২৩  

সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, ‘সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসনের নানা বিষয় ও কাজের পার্থক্য থাকলেও আমাদের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য এক। উভয়েই দেশের ও জনগণের কল্যাণে কাজ করি। দুর্যোগ মোকাবিলা, উন্নয় প্রকল্প বাস্তবায়ন এবং কোনও কোনও ক্ষেত্রে নিরাপত্তা বিষয়ে আমারা ওতপ্রোতভাবে জড়িত।’

তিনি বলেন, ‘ডিসি সম্মেলনকে আমি অত্যন্ত গুরুত্ব দিই। কারণ, ডিসিরা হচ্ছেন মাঠপর্যায়ে সরকারের প্রতিনিধি। সে কারণে এই সম্মেলনে আমি কোনও প্রতিনিধি না পাঠিয়ে নিজেই সরাসরি উপস্থিত হয়েছি। গত বছরও ডিসি সম্মেলনে আমি নিজেই এসেছিলাম।’

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ডিসি সম্মেলনের তৃতীয় দিনে জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

সেনাপ্রধান বলেন, ‘আগে ভুলের কারণে কিছু জায়গায় বোঝার পার্থক্য হলেও এখন আর তা হয় না। আমরা সামরিক প্রসাশন ও বেসামরিক প্রশাসন যৌথভাবে বিভিন্ন কাজ করে থাকি।’

জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ আরও বলেন, ‘ডিসি সাহেবরা তো সরকারের প্রতিনিধি। তাদের সঙ্গে আমাদের কাজের পরিধিও ব্যাপক। ফলে আমরা একসঙ্গে দেশের নিরাপত্তা ও উন্নয়নমূলক কাজ করছি, কোনও সমস্যা হচ্ছে না।’

কয়েকজন জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনারের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘তারা সুনির্দিষ্ট করে বলেছেন যে ‘দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সামরিক বাহিনীর সদস্যরা যেভাবে একসঙ্গে থেকে কাজ করেছেন, বেসামরিক প্রশাসনকে সহযোগিতা করেছেন, তা সত্যিই প্রশংসনীয়।’ আমি তাদের বলেছি, আপনাদের এই বার্তা আমার সেনাবাহিনীর সব সদস্যের কাছে পৌঁছে দেবো। আমি বিশ্বাস করি, আপনাদের এই বার্তা আমার সদস্যদের মনোবল আরও দৃঢ় করবে, উৎসাহী করবে।’

দ্বদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনাবাহিনী কী ভূমিকা রাখবে, এ নিয়ে জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে কোনও আলোচনা হয়েছে কি না, এ বিষয়ে জানতে চাইলে সেনাপ্রধান বলেন, ‘এ নিয়ে তাদের সঙ্গে কোনও আলোচনা হয়নি।’

মিয়ানমার সীমান্তে উত্তেজনা ও বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে কোনও আলোচনা হয়েছিল কি না, এ বিষয়ে জানতে চাইলে সেনাবাহিনীর প্রধান এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘এটি একটি ভিন্ন প্রসঙ্গ, ভিন্ন প্রেক্ষাপট। এখানে সে নিয়ে কোনও কথা হয়নি।’