• মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪৩১

  • || ১২ জ্বিলকদ ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ যত ষড়যন্ত্র হোক, আ.লীগ সংবিধানের বাইরে যাবে না: ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির আহতদের চিকিৎসায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী

ঈদে ট্রেনের সব অগ্রিম টিকিট অনলাইনে, মিলবে না কাউন্টারে

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২২ মার্চ ২০২৩  

আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ে আগামী ৭ এপ্রিল থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু করবে। এবার ঈদের ৫ দিনের অগ্রিম টিকিট শতভাগ অনলাইনে দেয়া হবে। অর্থাৎ কোনো অগ্রিম টিকিট স্টেশনের কাউন্টারে দেয়া হবে না।

বুধবার দুপুরে রেলভবনে আসন্ন ঈদুল ফিতরের টিকিট ব্যবস্থা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন।

রেলমন্ত্রী জানান, এবার ঈদে বিভিন্ন রুটে ৯ জোড়া আন্তনগর ট্রেন চালানো হবে। পরবর্তীতে আরও একটি ট্রেন বাড়ানো হতে পারে। এবার যেন কালোবাজারি না হয় সেজন্য রেজিস্ট্রেশন ছাড়া কোনো টিকিট দেয়া হচ্ছে না। ঈদ যাত্রায় যেন রেলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন না হয় সেজন্য এবার ঈদুল ফিতরের সব অগ্রিম টিকিট অনলাইনে বিক্রি করা হবে।

মন্ত্রী আরও জানান, আগামী ৭ এপ্রিল দেয়া হবে ১৭ এপ্রিলের অগ্রিম টিকিট। ৮ এপ্রিল দেয়া হবে ১৮ এপ্রিলের, ৯ এপ্রিল মিলবে ১৯ এপ্রিলের, ১০ এপ্রিল দেয়া হবে ২০ এপ্রিলের এবং ১১ এপ্রিল দেয়া হবে ২১ এপ্রিলের অগ্রিম টিকিট।

ঈদ পরবর্তী ফিরতি যাত্রার অগ্রিম টিকিট দেয়া শুরু হবে ১৫ এপ্রিল থেকে। শুরুর দিনে দেয়া হবে ২৫ এপ্রিলের টিকিট। ১৬ এপ্রিল দেয়া হবে ২৬ এপ্রিলের, ১৭ এপ্রিল মিলবে ২৭ এপ্রিলের, ১৮ এপ্রিল দেয়া হবে ২৮ এপ্রিলের এবং ১৯ এপ্রিল দেয়া হবে ২৯ এপ্রিলের অগ্রিম টিকিট।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আন্তঃদেশীয় মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেন ১৮-২৭ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। আন্তঃদেশীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন বন্ধ থাকবে ২০-২৭ এপ্রিল। তবে আন্তঃদেশীয় বন্ধন এক্সপ্রেস ট্রেন যথারীতি চলাচল করবে।

ঈদুল ফিতরের দিন বিশেষ ব্যবস্থাপনায় কতিপয় মেইল এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচলের ব্যবস্থা করা হবে। তবে কোনো আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করবে না।

পবিত্র ঈদুল ফিতরের পূর্বে ২০ এপ্রিল রাত ১২টার পর থেকে ঈদের দিন ২২ মার্চ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত কনটেইনার ও জ্বালানি তেলবাহী ট্রেন ছাড়া অন্যান্য সব পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হবে।

তাছাড়া, বিনা টিকিটের যাত্রী প্রতিরোধ ঢাকা, বিমানবন্দর, জয়দেবপুর, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী, খুলনা ও সব গন্তব্য স্টেশনসহ বড় বড় স্টেশনে জিআরপি, আরএনবি, বিজিবি ও স্থানীয় পুলিশ এবং র‍্যাবের সহযোগিতায় টিকিটবিহীন যাত্রী স্টেশনে প্রবেশের প্রতিরোধে সার্বক্ষণিক প্রহরার ব্যবস্থা করা হবে। তাছাড়া জেলা প্রশাসকদের সহায়তায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, চলন্ত ট্রেনে, স্টেশনে বা রেললাইনে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড প্রতিরোধকল্পে আরএনবি, জিআরপি ও রেলওয়ে কর্মচারীদের কার্যক্রম আরও জোরদার করা হবে। এ ছাড়া র‍্যাব, বিজিবি, স্থানীয় পুলিশ ও অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সক্রিয় সহযোগিতায় নাশকতাকারীদের কঠোরভাবে দমন করা হবে।

ঈদ যাত্রার শুরুর দিন ১৭ এপ্রিল থেকে ঈদের পূর্বদিন পর্যন্ত ঢাকাগামী একতা, দ্রুতযান, পঞ্চগড়, নীলসাগর, কুড়িগ্রাম, লালমনি ও রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনসমূহের ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশনে যাত্রাবিরতি থাকবে না।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. হুমায়ুন কবির, রেলের মহাপরিচালক মো. কামরুল আহসানসহ রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।