• শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১০ ১৪৩০

  • || ১২ শা'বান ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই সামুদ্রিক সম্পদ আহরণের আহ্বান সমুদ্রসীমার সম্পদ আহরণ করে কাজে লাগানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: শেখ হাসিনা হঠাৎ টাকার মালিক হওয়ারা মনে করে ইংরেজিতে কথা বললেই স্মার্টনেস ভাষা আন্দোলন দমাতে বঙ্গবন্ধুকে কারান্তরীণ রাখা হয় : সজীব ওয়াজেদ ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই বাংলাদেশের মানুষ স্বাধিকার পেয়েছে অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশ বিমান বাহিনী একাডেমিতে রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৯ নভেম্বর ২০২৩  

বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ৮৩তম বাফা কোর্স ও ডিরেক্ট এন্ট্রি-২০২৩ বি কোর্সের কমিশন প্রাপ্তি উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ (শীতকালীন)-২০২৩ আজ মঙ্গলবার যশোরের বিমান বাহিনী একাডেমি প্যারেড গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করেন।

তিনি গ্র্যাজুয়েটিং অফিসারদের মধ্যে ফ্লাইং ব্যাজ ও বিভিন্ন ট্রফি বিতরণ করেন।

এছাড়াও  বিমান বাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মৌলিক নেভিগেশন প্রশিক্ষণ সমাপ্তি উপলক্ষ্যে নেভিগেশন ব্যাজ প্রদান করা হয়।
অফিসার ক্যাডেট এম. শাহেদুল ইসলাম ৮৩তম বাফা কোর্স সেরা চৌকস কৃতিত্বের জন্য “সোর্ড অব অনার”, অফিসার ক্যাডেট আমান হোসেন উড্ডয়ন প্রশিক্ষণে সেরা কৃতিত্বের জন্য “বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান ট্রফি” এবং অফিসার ক্যাডেট হিমাল কে সি জেনারেল সার্ভিস প্রশিক্ষণে কৃতিত্বের জন্য “কমান্ড্যান্টস্ ট্রফি” লাভ করেন।

৮৩তম বাফা কোর্স (গ্রাউন্ড ব্রাঞ্চ) এ সেরা কৃতিত্বের জন্য অফিসার ক্যাডেট নাদিরা শামস্ লাবীবা “বিমান বাহিনী প্রধানের ট্রফি” লাভ করেন।
এয়ার চীফ মার্শাল শেখ আব্দুল হানান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। তিনি বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমান এবং কিলো ফ্লাইটের সদস্যবৃন্দসহ সকল বীর মুক্তিযোদ্ধার প্রতি শ্রদ্ধা জানান, যাঁদের অপরিসীম ত্যাগের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ এবং তাঁর স্বপ্ন ও দূরদৃষ্টিকে সামনে রেখে তাঁরই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ও দিকনির্দেশনায় বিমান বাহিনীকে একটি শক্তিশালী ও যুগোপযোগী বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে বিমান বাহিনীর উন্নয়ন ও আধুনিকায়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রয়েছে,  ‘ফোর্সেস গোল-২০৩০’ অনুযায়ী বাহিনীতে সংযোজিত হচ্ছে নতুন সব সর্বাধুনিক বিমান এবং সরঞ্জামাদি।
তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী নিজস্ব জনবল, প্রযুক্তি ও কারিগরি দক্ষতা ব্যবহার করে যুদ্ধ বিমানের ওভারহোলিং করতে সক্ষম।

তিনি আরো বলেন, বিমান বাহিনী একাডেমির বিশ্বমানের প্রশিক্ষণের কারণে বিশ্বের বিভিন্ন বন্ধুপ্রতিম দেশের ক্যাডেটরা এ একাডেমিতে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছে যা দৃষ্টান্তমূলক।
তিনি সদ্য কমিশনপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সাফল্য কামনা করেন এবং বাংলাদেশ বিমান বাহিনী একাডেমির সকল সদস্যদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

এ কুচকাওয়াজের মাধ্যমে ১৮ জন মহিলা এবং একজন নেপালি ও এক জন জাম্বিয়ান অফিসার ক্যাডেট সহ মোট ৯৩ জন অফিসার ক্যাডেট কমিশন লাভ করেন।
অফিসার ক্যাডেট একাডেমি সিনিয়র আন্ডার অফিসার মাহমুদ আল ইয়ামিন আনুষ্ঠানিক কুচকাওয়াজের নেতৃত্ব প্রদান করেন। কুচকাওয়াজ শেষে বিমান বাহিনী একাডেমির বিভিন্ন প্রকার বিমানের মনোজ্ঞ আকর্ষনীয় ফ্লাইপাস্ট অনুষ্ঠিত হয়।

বিমান বাহিনী একাডেমিতে প্রথমবারের মতো বিমান বাহিনীর চৌকশ প্যারাট্রুপারদের হেলিকপ্টার হতে দৃষ্টিনন্দন প্যারা জাম্পিং অনুষ্ঠিত হয়।
অন্যদের মধ্যে সংসদ সদস্য, উচ্চ পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ, বৈদেশিক মিশনের কূটনীতিকগণ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং সদ্য কমিশনপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের অভিভাবকবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।