• শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১০ ১৪৩০

  • || ১২ শা'বান ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই সামুদ্রিক সম্পদ আহরণের আহ্বান সমুদ্রসীমার সম্পদ আহরণ করে কাজে লাগানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: শেখ হাসিনা হঠাৎ টাকার মালিক হওয়ারা মনে করে ইংরেজিতে কথা বললেই স্মার্টনেস ভাষা আন্দোলন দমাতে বঙ্গবন্ধুকে কারান্তরীণ রাখা হয় : সজীব ওয়াজেদ ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই বাংলাদেশের মানুষ স্বাধিকার পেয়েছে অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী

১৩ দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ নিয়ে চুক্তি করতে চায় বাংলাদেশ

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ১১ ডিসেম্বর ২০২৩  

বিশ্বের ১৩টি দেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল চুক্তি বিষয়ক আলোচনা করেছে বাংলাদেশ। দেশগুলো হচ্ছে ইথিওপিয়া, কুয়েত, কাতার, বাহরাইন, জর্ডান, আলজেরিয়া, ওমান, থাইল্যান্ড, কানাডা, উজবেকিস্তান, নেদারল্যান্ডস, জার্মানি ও যুক্তরাজ্য। দেশগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটিতে ফ্লাইট চলাচল করলেও অন্যান্য চুক্তি করতে চায় বাংলাদেশ।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বেবিচক জানায়, এ বছরের ৩ থেকে ৭ ডিসেম্বর সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান চলাচল সংস্থার (আইকাও) বিমান চলাচল নেগোসিয়েশন সংক্রান্ত সবচেয়ে বড় ইভেন্ট আইকাও এয়ার সার্ভিস নেগোসিয়েশন ইভেন্ট (আইক্যান-২০২৩) অনুষ্ঠিত হয়।

এ বছর এতে আইকাওয়ের ৯৭টি সদস্য দেশের অ্যারোনটিক্যাল অথরিটির প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেছেন। এ ইভেন্টে মূলত আইকাওয়ের সদস্য দেশগুলো নিজেদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল চুক্তি স্বাক্ষর, অনুস্বাক্ষর, দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল চুক্তির সম্প্রসারণ এবং বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের সহযোগিতা ও দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা-পর্যালোচনা হয়ে থাকে। আলোচনা পর্যালোচনার পর আলোচিত বিষয়ের ওপর রেকর্ড অব ডিসকাশন, অ্যাগ্রিড মিনিটস ও মেমোরেন্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং স্বাক্ষর হয়ে থাকে।

 প্রতি বছর নেগোসিয়েশন সংক্রান্ত আইকাওয়ের সবচেয়ে বড় এ ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয়। তবে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ২০১৯ সালের পর ইভেন্টটিতে অংশগ্রহণ করতে পারেনি বাংলাদেশ। এ বছর বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমানের নেতৃত্বে ইভেন্টটিতে অংশগ্রহণ করে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বেবিচক ও বাংলাদেশি এয়ারলাইন্সের প্রতিনিধিসহ পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল।

এই ইভেন্টে বাংলাদেশের সঙ্গে মোট ১৩টি দেশের দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল চুক্তি বিষয়ক আলোচনা হয়। তার মধ্যে বাংলাদেশ ও ইথিওপিয়ার মধ্যে নতুন দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ চুক্তির ফলে দুই দেশের মনোনীত বিমান সংস্থা নিজেদের মধ্যে সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

নতুন এ চুক্তি স্বাক্ষর ছাড়াও বাংলাদেশের সঙ্গে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল চুক্তিগুলোর আওতায় বিমান চলাচল সংক্রান্ত বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধাদি সম্প্রসারণের উদ্দেশ্যে কুয়েত, কাতার ও বাহরাইনের মধ্যে অ্যাগ্রিড মিনিটস চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এছাড়া, জর্ডান, আলজেরিয়া, ওমান, থাইল্যান্ড, কানাডা ও উজবেকিস্তানের সঙ্গে রেকর্ড অব ডিসকাশন এবং বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল চুক্তি আধুনিকায়নের উদ্দেশ্যে নেদারল্যান্ডস, জার্মানি, ও যুক্তরাজ্যের সঙ্গে রেকর্ড অব ডিসকাশন স্বাক্ষরিত হয়েছে।

আলোচনাতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সসহ অন্যান্য দেশীয় এয়ারলাইন্সের সঙ্গে বিদেশি এয়ারলাইন্সের কোড শেয়ারসহ বাণিজ্যিক সহযোগিতা বৃদ্ধিকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।