• শনিবার   ১৬ অক্টোবর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৩০ ১৪২৮

  • || ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

পিরোজপুর সংবাদ

তিনি ভুয়া পুলিশ!

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ১৩ অক্টোবর ২০২১  

অ্যাডিশনাল এসপি পরিচয়ে প্রতারণার মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে জিল্লুর রহমান জেলিন নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) মোহাম্মদপুর থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এসময় তার কাছ থেকে বাংলাদেশ পুলিশের র‌্যাংক ব্যাজ, লোগো ও পুলিশ মনোগ্রাম সংবলিত নেভি ব্লু রঙের একটি পুলিশের হাফ হাতা শার্ট, নেভি ব্লু রঙের পুলিশের একটি ফুল প্যান্ট, পুলিশের মনোগ্রাম সংবলিত চামড়ার বেল্ট, কালো রঙের টিউনিক ক্যাপ একটি, জিল্লুর নামের একটি নেম প্লেট, একটি পুলিশ সার্ভিস টাই, বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি সারদার প্রশিক্ষণ সিডিউলের দুটি পাতা ও দুটি মোবাইল জব্দ করা হয়।

এ বিষয়ে ডিএমপির যুগ্ম পুলিশ কমিশনার (সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম ও ডিবি-উত্তর) মো. হারুন অর রশীদ জানান, প্রতারক জিল্লুর অ্যাডিশনাল এসপি পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন কৌশলে প্রতারণার মাধ্যমে ভুক্তভোগী মো. শহীদুল ইসলামের কাছ থেকে ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। ভিকটিম শহিদুল ইসলামের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় একটি মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শুরু করে সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের ওয়েব বেইজড ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন টিম। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে প্রতারক জিল্লুকে গ্রেফতার করে।

ডিবির যুগ্ম পুলিশ কমিশনার জানান, আসামি জিল্লুর ১৯৯৯ সালে সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ থানার রায়গঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করেন। তিনি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্যে নিজেকে অ্যাডিশনাল এসপি হিসেবে পরিচয় দিতেন। প্রতারক জিল্লুর নিজেকে অ্যাডিশনাল এসপি পরিচয় দিলেও তার কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া র‌্যাংক ব্যাজ ছিল এসপি পদমর্যাদার কর্মকর্তার।  

হারুন অর রশীদ আরও জানান, জিল্লুর নিজেকে অ্যাডিশনাল এসপি পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন কৌশলে ভিকটিম শহীদুল ইসলামের কাছ থেকে অন্তত ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। এছাড়া পুলিশ কনস্টবলে চাকরি দেওয়ার কথা বলে অনেকের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন।  

আসামি জিল্লুর নিজেকে পুলিশ পরিচয়ে প্রতারণা করে পুলিশ বাহিনীর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করেছেন বলেও জানান ডিএমপির যুগ্ম পুলিশ কমিশনার।