• বুধবার   ২৯ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৫ ১৪২৯

  • || ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রে জড়িতদের খুঁজতে কমিশন গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের ব্যবসা বৃদ্ধিতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী উন্নত যোগাযোগব্যবস্থা শিল্পায়নকে ত্বরান্বিত করে: প্রধানমন্ত্রী দু-একদিনের মধ্যে কমবে তেলের দাম: বাণিজ্যসচিব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতেও ডোপ টেস্ট : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পদ্মা সেতু সক্ষমতা-মর্যাদার প্রতীক: প্রধানমন্ত্রী ১০০ বছরেও কোনও ক্ষতি হবে না পদ্মা সেতুর: মন্ত্রিপরিষদ সচিব বাঙালি জাতির সমস্ত অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরে এসেছে: তথ্যমন্ত্রী সংক্রমণ বাড়ছে, শিগগির বুস্টার ডোজ নিন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে আরো শক্তিশালী করতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

জাল নোট তৈরি চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২২  

রাজধানীর বংশাল এলাকা থেকে জাল টাকা তৈরি ও ব্যবসায়ী চক্রের দুই সক্রিয় সদস্য গ্রেফতারকে করেছে র‍্যাব। গ্রেফতাররা হলেন- মো. রমজান হোসেন টুটুল (২২) ও আব্দুল মালেক (৩৭)।

এসময় তাদের কাছ থেকে জাল টাকা তৈরির সরঞ্জামসহ দুই লাখ ৯ হাজার টাকা মূল্যমানের জাল নোট, একটি সিপিইউ, একটি মনিটর, একটি প্রিন্টার ও তিনটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

শনিবার (২৮ মে) র‍্যাব-১-এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) সহকারী পুলিশ সুপার নোমান আহমদ এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সম্প্রতি জাল টাকা তৈরির সঙ্গে বেশ কয়েকটি চক্র জড়িত আছে বলে গোয়েন্দা সূত্রে জানা যায়। দেশের অর্থনীতির চাকাকে অচল করতে এবং সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিয়ে অধিক মুনাফার লোভে জাল টাকা তৈরি ও বাজারজাত করার সংঘবদ্ধ কিছু চক্র সক্রিয় হয়েছে। এ চক্রগুলো জাল টাকা তৈরি করে নিদির্ষ্ট কয়েকজন সদস্য দিয়ে আসল টাকার ভেতর জাল টাকা মিলিয়ে সহজ-সরল মানুষকে নিঃস্ব করে দিচ্ছে। এ বিষয়ে দীর্ঘ অনুসন্ধানের পর এ চক্রের কিছু সদস্য র‌্যাবের জালে ধরা পড়েছে।

এএসপি নোমান আহমদ বলেন, এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (২৭ মে) রাতে র‌্যাব-১-এর একটি আভিযানিক দল গোপন সূত্রের মাধ্যমে জানতে পারে, রাজধানীর বংশাল থানাধীন আবাসিক হোটেল টিউলিপের ১৩৫ নম্বর রুমে একটি চক্র জাল টাকা তৈরি করে আসছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালিয়ে জাল নোট তৈরি ও ব্যবসায়ী চক্রের দুই সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করে।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতারদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, তারা দীর্ঘদিন ধরে জাল নোট তৈরি করে আসছিল। তারা বিভিন্ন জায়গা থেকে জাল নোট তৈরির কাঁচামাল সংগ্রহ করে নোট তৈরি করতো। সুনির্দিষ্ট কিছু লোককে সরবরাহের জন্য বিপুল পরিমাণ জাল নোট তৈরি ও বাজারে সরবরাহ করে আসছিল বলেও স্বীকার করেছেন গ্রেফতাররা।