• বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

  • || ২১ জ্বিলকদ ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী যুদ্ধ মানবজাতির জন্য কী কল্যাণ বয়ে আনছে- প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বশান্তি নিশ্চিত করা এখন অতীতের চেয়ে কঠিন : শেখ হাসিনা বাংলাদেশ বিশ্ব শান্তি রক্ষায় এক অনন্য নাম : রাষ্ট্রপতি রাত ২টা পর্যন্ত নিজেই দুর্যোগ মনিটর করেছেন প্রধানমন্ত্রী রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ দ্রুত মেরামতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বৃহস্পতিবার পটুয়াখালী যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় যাবেন শেখ হাসিনা ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার অগ্রযাত্রায় মার্কিন ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক ডকুমেন্টারি ‘কলকাতায় মুজিব’ অবলোকন

বাজারে শীতের সবজি, স্বস্তি ব্রয়লারে

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ১৮ নভেম্বর ২০২৩  

বাজারে আসতে শুরু করেছে শীতের সবজি। সরবরাহ বাড়ায় রাজধানীতে কিছুটা কমতে শুরু করেছে সবজির দাম। এতে ক্রেতাদের মধ্যে দেখা গেছে স্বস্তি। সেই সঙ্গে ব্রয়লার মুরগির দামও কিছুটা কমেছে। তবে মাছের বাজার একটু বাড়তি। বিক্রেতারা বলছেন, হরতাল-অবরোধে সরবরাহ কম, তাই দাম একটু বেশি।  
শুক্রবার সকালে রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এবং বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।  

রাজধানীর কাঁচাবাজারগুলোতে সবচেয়ে কম দামে যে সবজিটি পাওয়া যাচ্ছে, তা হলো পেঁপে। প্রতি কেজি পেঁপে বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৩৫ টাকায়। আকারভেদে প্রতিটি ফুলকপি ৩৫ থেকে ৫০ টাকা পর্যন্ত দামে বিক্রি হচ্ছে। বাঁধাকপি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকায়। এছাড়া প্রতি পিস লাউ বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকায়।

৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া সবজিগুলোর মধ্যে রয়েছে মিষ্টি কুমড়া, মুলা ও আলু। বেগুন গত সপ্তাহের তুলনায় কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে।  

বাজারে ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া সবজিগুলোর মধ্যে রয়েছে পটল, করলা, শসা, ঢেঁড়স, ঝিঙা ও ধুন্দল। এসব সবজি গত সপ্তাহের চেয়ে কিছুটা কম দামে বিক্রি হচ্ছে।  

শিম প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকায়। বরবটি প্রতি কেজি ৮০ টাকা, কচুর মুখি ৮০ টাকা, কচুর লতি ৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

টমেটোর কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়। কাঁচামরিচ ১৬০ থেকে ১৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি ১২০ থেকে ১২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১১০ টাকায়।  

মিরপুর ৬ নম্বর কাঁচা বাজারের সবজি বিক্রেতা মোহাম্মদ রফিক বলেন, শীতের সবজি শিম, ফুলকপি, টমেটো বাজারে আসতে শুরু করায় দাম এখন কিছুটা কমতে শুরু করেছে। তবে সামনে এই শীতের সবজির দাম আরো কমবে।  

এদিকে মাছের বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি কেজি তেলাপিয়া ১৮০ থেকে ২২০ টাকা, পাঙাশ ২২০ থেকে ২৫০ টাকা, চাষের কই ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা, টাকি ৪০০ টাকা, পাবদা ৩৫০ থেকে ৪০০ টাকা, শিং ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা, রুই ২৯০ থেকে ৪০০ টাকা, কাতল ২৮০ থেকে ৩৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কেজি আকারের ইলিশের কেজি ১ হাজার ১০০ থেকে ১ হাজার ২০০ টাকা।

মাছের দামের বিষয়ে কারওয়ান বাজারের মাছ বিক্রেতা করিম উদ্দিন বলেন, হরতাল-অবরোধের কারণে বিভিন্ন স্থান থেকে ঢাকার বাজারগুলোতে মাছ কম আসছে। পরিবহন সংকটে গাড়ি ভাড়াও বেশি দিতে হচ্ছে। এ কারণে মাছের বাজার একটু বাড়তি হলেও ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রয়েছে।  

অন্যদিকে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৮০ থেকে ২০০ টাকায়। সোনালি ও ককের কেজি ৩০০ থেকে ৩৪০ টাকা। পাশাপাশি গরুর মাংসের কেজি ৭৮০ টাকা, খাসির মাংস ১ হাজার ১০০ টাকা।

নতুন বাজারের মুরগি বিক্রেতা বেলালা হোসেন বলেন, বাজারে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজিতে ১০ টাকার মতো কমেছে। গত সপ্তাহে ২০০ টাকার বেশি দামে ব্রয়লার বিক্রি করলেও এ সপ্তাহে ১৮০ থেকে ১৯০ টাকার মধ্যে বিক্রি করছি। পাকিস্তানি কক এবং সোনালি মুরগী আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে।