• বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

  • || ২১ জ্বিলকদ ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী যুদ্ধ মানবজাতির জন্য কী কল্যাণ বয়ে আনছে- প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বশান্তি নিশ্চিত করা এখন অতীতের চেয়ে কঠিন : শেখ হাসিনা বাংলাদেশ বিশ্ব শান্তি রক্ষায় এক অনন্য নাম : রাষ্ট্রপতি রাত ২টা পর্যন্ত নিজেই দুর্যোগ মনিটর করেছেন প্রধানমন্ত্রী রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ দ্রুত মেরামতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বৃহস্পতিবার পটুয়াখালী যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় যাবেন শেখ হাসিনা ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার অগ্রযাত্রায় মার্কিন ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক ডকুমেন্টারি ‘কলকাতায় মুজিব’ অবলোকন

ভোটে জিততে ভরসা ফকির বাবার ‘জুতোর বাড়ি’!

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর ২০২৩  

কথায় আছে, জুতো মেরে গরু দান। তবে এখানে ঠিক গরু নয়, জুতো মেরে ভোটে জেতানো হচ্ছে, এমনটা বলা যেতে পারে। সম্প্রতি ভারতের মধ্যপ্রদেশের বিধানসভার নির্বাচনকে ঘিরে এক প্রার্থীর একটি ভাইরাল হওয়া ভিডিওতেই মিলেছে সেই জবাব। যেখানে কংগ্রেসের প্রার্থী হওয়া পারাস সাখলেচাকে ভোটে জয়ী হতে জুতোর মার খেতে দেখা গিয়েছে।

শনিবার (১৮ নভেম্বর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, সাখলেচা এর আগে ২০১৩ ও ২০১৮ সালে মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন। কিন্তু জয়ী হতে পারেনি। এজন্য এবার তিনি জয়ী হতে বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) ওই ফকির বাবার কাছে নতুন জুতা নিয়ে দোয়া চাইতে যান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, নতুন জুতা বাবার কাছে দেয়ার পর তা দিয়ে সাখলেচাকে মারতে শুরু করেন ফকির। একবার পিঠে, একবার গালে, এমনকি কংগ্রেস নেতার মাথায় পর্যন্ত জুতো দিয়ে মারছিলেন ওই ফকির। অথচ একবারের জন্য প্রতিবাদ করেননি কংগ্রেস নেতা। জুতার বাড়ি খেয়েও সাখলেচাকে হাসতেও দেখা যায়।

ওই বাবা একজন ফকির। স্থানীয়রা তাকে বাবা বলে ডাকেন। অনেকে তার কাছ থেকে দোয়া নিতে যান।

এ বিষয়ে সাখলেচা বলেন, তিনি একজন বিখ্যাত ফকির বাবা, সবাই তাকে বাবা বলেই ডাকেন। মানুষজন তাকে ভালোবেসে লুঙ্গি চপ্পল দান করেন। অনেকেই মনে করেন তার আধ্যাত্মিক ক্ষমতা আছে। আর এই ক্ষমতা বলে তিনি অশুভ শক্তিতে দূর করতে পারেন।

প্রসঙ্গত,  শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) মধ্যপ্রদেশের বিধানসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচন প্রায় ৭৬.২২ শতাংশ ভোট পড়ে। আগামী ৩ ডিসেম্বর ভোটের ফলাফল প্রকাশ করা হবে।