• বুধবার   ২৯ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৫ ১৪২৯

  • || ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রে জড়িতদের খুঁজতে কমিশন গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের ব্যবসা বৃদ্ধিতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী উন্নত যোগাযোগব্যবস্থা শিল্পায়নকে ত্বরান্বিত করে: প্রধানমন্ত্রী দু-একদিনের মধ্যে কমবে তেলের দাম: বাণিজ্যসচিব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতেও ডোপ টেস্ট : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পদ্মা সেতু সক্ষমতা-মর্যাদার প্রতীক: প্রধানমন্ত্রী ১০০ বছরেও কোনও ক্ষতি হবে না পদ্মা সেতুর: মন্ত্রিপরিষদ সচিব বাঙালি জাতির সমস্ত অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরে এসেছে: তথ্যমন্ত্রী সংক্রমণ বাড়ছে, শিগগির বুস্টার ডোজ নিন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে আরো শক্তিশালী করতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অকারণেই বুক ধড়ফড় করা যে রোগের ইঙ্গিত দেয়

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০২২  

বর্তমানে আমাদের চারপাশে যেসব অসুখের প্রকোপ সবচেয়ে বেড়েছে, তার মধ্যে ক্যান্সার প্রধান। ক্যান্সার বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে, তার মধ্যে ফুসফুসের ক্যান্সার অন্যতম। আধুনিক জীবনযাত্রা, খাদ্যাভ্যাসে অনিয়ম, অতিরিক্ত দূষণের কারণে ক্যান্সারের প্রবণতা বেড়েছে।   

মূলত ধূমপায়ীদেরই ফুসফুসে ক্যান্সার হয় বলে ধারণা রয়েছে আমাদের। কারো ফুসফুসে ক্যান্সার হলেই আমরা ধরে নেই, তিনি ধূমপায়ী ছিলেন। কিন্তু ধূমপান না করলেও ফুসফুসে ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি থেকেই যায়।

বারবার নিউমোনিয়া বা ব্রঙ্কাইটিসের মতো উদ্বেগজনক লক্ষণগুলো দেখা দিলে বুঝতে হবে ক্যান্সার ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে আপনার শরীরে। কিছু নির্দিষ্ট লক্ষণ এবং উপসর্গ রয়েছে যা জানান দেয় ফুসফুসে তৈরি হওয়া টিউমার আপনার হৃদযন্ত্রের উপর চাপ তৈরি করছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, হৃদস্পন্দনের হার হঠাৎ বেড়ে যাওয়াও এই মারণরোগের লক্ষণ হতেই পারে।

ইউরোপীয় কার্ডিওলজি রিভিউ (ইসিআর) অনুসারে, ক্যান্সারে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে বুক ধড়ফড় করা একটি সাধারণ ঘটনা। এক্ষেত্রে ফুসফুসের টিউমার যত বড় হতে থাকে, ততই হৃদ‌যন্ত্রের উপর চাপ সৃষ্টি হয়। তবে বুকে ধড়ফড়ানি মানেই তা ক্যান্সারের লক্ষণ না-ও হতে পারে।

অনেক সময় মানসিক চাপ, শরীরচর্চা, ওষুধের প্রভাবেও এমনটা হতে পারে। এছাড়া আর কোন কোন সঙ্কেত পেলে বেশি সাবধান হতে হবে?

ঘন ঘন সর্দি-কাশি লেগেই আছে? এমন কিন্তু স্বাভাবিক নয়। সাধারণ কাশি সপ্তাহ খানেকের বেশি স্থায়ী হয় না। তাই দীর্ঘদিন যদি কাশি না কমে, তাহলে সাবধান হওয়া জরুরি। 

ফুসফুসে টিউমার তৈরি হলে বায়ু প্রবাহের পথ রুদ্ধ হতে পারে। আবার কখনো কখনো টিউমারের প্রভাবে ফুসফুসে পানি জমে যেতে পারে। কাজেই অল্প হাঁটাহাঁটি কিংবা সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করলেই যদি দম ফুরিয়ে আসার উপক্রম হয়, তবে তা উপেক্ষা করা বাঞ্ছনীয় নয়।

এছাড়াও কফের সঙ্গে রক্ত বেরোনো, হঠাৎ করে ওজন কমে যাওয়া, খাওয়ার ইচ্ছে কমে যাওয়া, সর্বক্ষণ ক্লান্তিভাব, শ্বাস নেয়ার সময় বুকে ব্যথাও ফুসফুসের ক্যান্সারের লক্ষণ হতে পারে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, নখ দেখেও বোঝা যায় আপনার শরীরে এই রোগ বাসা বেঁধেছে কি না! নখ নরম হয়ে যাওয়া, স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি বেঁকে যাওয়া, আঙুলে পানি জমে ফুলে যাওয়া—এই উপসর্গগুলোও ফুসফুসে ক্যান্সারের উপসর্গ হতে পারে।