• শনিবার ২২ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৭ ১৪৩১

  • || ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর: আঞ্চলিক ভূ-রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে ফিলিস্তিনসহ দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে

জ্বরে আক্রান্ত শিশু, অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইনফেকশন নয়তো?

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০২৩  

ভোরে ঠাণ্ডা বাতাস আর বেলা বাড়তেই গরম। আবার সন্ধ্যার বাতাস ঠাণ্ডা হয়ে আসে, ক্ষণে ক্ষণে বদলায় প্রকৃতি। সব মিলিয়ে খামখেয়ালি আবহাওয়া। তার ফলে ঘরে ঘরে জ্বর, সর্দি, কাশি। সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা।
চিকিৎসকদের পরিভাষায় অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইনফেকশন বা ইনফ্লুয়েঞ্জা লাইক ইলনেসে ভুগছে শিশুরা। এই সময়ে কীভাবে সুস্থ রাখবেন সন্তানকে? জেনে নিন:

কীভাবে বুঝবেন আপনার শিশু অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইনফেকশনে ভুগছে?
উপসর্গ

>> তিন দিনের বেশি জ্বর।
>> নাক দিয়ে পানি পড়া।
>> গলা ব্যথা।
>> সারা শরীরে ব্যথা।
>> বমি।
>> পাতলা পায়খানা।
>> দ্রুত শ্বাসপ্রশ্বাস নেয়া।

এই অবস্থা দেখা দিলে করণীয়:

>> শিশুকে বেশি পরিমাণে তরল খাবার খাওয়ান।
>> পাতলা পায়খানা হলে শিশুকে স্যালাইন খাওয়ান।
>> জ্বর না কমলে গা মুছিয়ে দিতে হবে। শিশুর জ্বর, খাওয়ার পরিমাণ, প্রস্রাবের পরিমাণের কমছে কিনা, সেদিকে নজর রাখুন। পরিবারের খুদে সদস্যকে বাসক এবং তুলসি পাতার রস খাওয়ান।

তিন দিনের বেশি জ্বর, শিশুদের প্রস্রাব কমে যাওয়ার, সারাক্ষণ ঝিমুনি, স্বাভাবিকের থেকে দ্রুত শ্বাস নিলে অবশ্যই শিশুকে হাসপাতালে নিয়ে যান। শিশু যাতে অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইনফেকশনে না ভোগে তাই আগাম সতর্কতা নিন।

>> বারবার সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলুন। শিশুকেও তা শেখান।
>> বাইরে থেকে এসে তাড়াতাড়ি জামাকাপড় বদল করুন।
>> ভিড় থেকে শিশুকে দূরে রাখুন। মাস্ক ব্যবহার করুন।
>> হাঁচি, কাশির সময় রুমাল ব্যবহার করুন।
>> অসুস্থ শিশুকে ভুলেও স্কুলে পাঠাবেন না।
>> শিশুকে বারবার হালকা গরম পানীয় খাওয়ান।