• বুধবার   ২৯ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৫ ১৪২৯

  • || ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রে জড়িতদের খুঁজতে কমিশন গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের ব্যবসা বৃদ্ধিতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী উন্নত যোগাযোগব্যবস্থা শিল্পায়নকে ত্বরান্বিত করে: প্রধানমন্ত্রী দু-একদিনের মধ্যে কমবে তেলের দাম: বাণিজ্যসচিব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতেও ডোপ টেস্ট : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পদ্মা সেতু সক্ষমতা-মর্যাদার প্রতীক: প্রধানমন্ত্রী ১০০ বছরেও কোনও ক্ষতি হবে না পদ্মা সেতুর: মন্ত্রিপরিষদ সচিব বাঙালি জাতির সমস্ত অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরে এসেছে: তথ্যমন্ত্রী সংক্রমণ বাড়ছে, শিগগির বুস্টার ডোজ নিন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে আরো শক্তিশালী করতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মঠবাড়িয়ায় প্রশাসনের নাম ব্যবহার করে চাঁদাবাজিতে গ্রেপ্তারকৃত যুবক রিমান্ডে

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ১ জুন ২০২২  

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় উপজেলা প্রশাসনের নাম ভাঙিয়ে বিভিন্ন সময় চাঁদা দাবি করার অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত যুবক সুমন সাহাকে জিজ্ঞাসা বাদের জন্য দুই দিনের রিমান্ডে নিয়েছেন মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ। মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এস আই রাসেল সুমন সাহার ৫ দিন রিমান্ড চেয়ে বিজ্ঞ আদালতে আবেদন করেন।

মঠবাড়িয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট  মো. কামরুল আজাদ শুনানী শেষে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। জিজ্ঞাসা শেষে সুমন সাহাকে আজ ০১ জুন বুধবার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করেছেন। 

জানা গেছে, মঠবাড়িয়া উপজেলা প্রশাসনের নাম ভাঙিয়ে একটি চক্র ব্যবসায়িসহ বিভিন্ন জনের নিকট চাঁদা দাবি করে আসছিলো। সম্প্রতি এ চক্রটি পৌর শহরের একটি বেকারির মালিকের কাছে চাঁদা দাবি করে। এছাড়া সাতক্ষীরা ঘোষ ডেয়ারি নামে একটি মিস্টির দোকানে চাঁদা দাবি করে এবং বিকাশে ১২‘শ টাকা চাঁদা নেয়। বিষটি তাদের সন্দেহ হলে সাতক্ষীরা ঘোষ ডেয়ারি এর স্বত্তাধিকারি মানিক লাল ঘোষ বিভিন্ন মোবাইল নম্বর দিয়ে মঠবাড়িয়া থানায় অজ্ঞাত আসামীর বিরুদ্ধে মামলা করেন। পুলিশ মোবাইল ও তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রতারক সুমন সাহা (৩৪) ও শিলা বেগম (৩০) কে সনাক্ত করে খুলনা পুলিশের সহযোগিতায় খুলনা খাল পাড় নামক এলাকা থেকে গত ২০ শুক্রবার তাদের গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃত সুমন সাহা মঠবাড়িয়া উপজেলার দক্ষিণ বড় মাছুয়া গ্রামের শ্যামল সাহার ছেলে ও শিলা বেগম খুলনা মহানগরের খালপাড়া এলাকার ইউনুস আলীর মেয়ে ও মো. রনি মিয়ার স্ত্রী।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল বলেন, রিমান্ডে অনেক গুরুপ্তপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। তবে তদন্তের স্বার্থে এই মূহুর্তে কোন মনতব্য করা যাবে না।