• বুধবার   ২৯ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৫ ১৪২৯

  • || ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রে জড়িতদের খুঁজতে কমিশন গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের ব্যবসা বৃদ্ধিতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী উন্নত যোগাযোগব্যবস্থা শিল্পায়নকে ত্বরান্বিত করে: প্রধানমন্ত্রী দু-একদিনের মধ্যে কমবে তেলের দাম: বাণিজ্যসচিব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতেও ডোপ টেস্ট : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পদ্মা সেতু সক্ষমতা-মর্যাদার প্রতীক: প্রধানমন্ত্রী ১০০ বছরেও কোনও ক্ষতি হবে না পদ্মা সেতুর: মন্ত্রিপরিষদ সচিব বাঙালি জাতির সমস্ত অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরে এসেছে: তথ্যমন্ত্রী সংক্রমণ বাড়ছে, শিগগির বুস্টার ডোজ নিন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে আরো শক্তিশালী করতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ইভিএম নিয়ে বিএনপির অপপ্রচার

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২২  

দ্রুত ও নির্ভুলভাবে ভোটগ্রহণ এবং ফল প্রকাশে যুগান্তকারী এক পদ্ধতি হলো ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম)। ফিঙ্গার প্রিন্ট ছাড়া এখানে ভোট দেওয়া যায় না। এ পদ্ধতিতে জাল বা একাধিক ভোট দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। এর ফলে দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হয়ে জাতীয় নির্বাচনে ইভিএমকে বিতর্কিত করতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপপ্রচার চালাচ্ছে বিএনপি-জামায়াত।

জানা গেছে, বিএনপি-জামায়াতের লক্ষ্য হচ্ছে ভোট কারচুপি করে হলেও ক্ষমতা দখল করা। বিএনপি এবং তাদের জোটের নেতারা মূলত এ মেশিন নিয়েই ইভিএমকে বিরোধিতা করছে।

ভোটাররা এক প্রতীকে ভোট দিলে তা অন্য প্রতীকে যুক্ত হবে বলে যে দাবি জানাচ্ছে বিএনপি, তা অপপ্রচার আর গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা।

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দ্রুত ও নির্ভুলভাবে ভোটগ্রহণ এবং ফল প্রকাশে যুগান্তকারী এক পরিবর্তন নিয়ে এসেছে ইভিএম ব্যবস্থা। আর এতে কারচুপির সুযোগও নেই। ন্যূনতম ১০ থেকে সর্বোচ্চ ৪৫ মিনিটে ভোট গণনায় সক্ষম এ যন্ত্রগুলোর মাধ্যমে ৪-৬ ঘণ্টার মধ্যেই পুরো নির্বাচনের ফল ঘোষণা সম্ভব।

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের মতে, ইভিএম মেশিন হ্যাক করার সুযোগ নেই। যেহেতু আমাদের ইভিএম ইউনিটগুলো কোনো নেটওয়ার্কের আওতায় নেই সেহেতু সেন্ট্রাল ডাটা সেন্টার হ্যাক করার প্রশ্ন অবান্তর।

ইভিএম নিয়ে বিএনপির অপপ্রচার নির্বাচনে অংশ না নেয়ার নতুন অজুহাত উল্লেখ করে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেন, রাজনৈতিকভাবে বিএনপি দেউলিয়া। জনসমর্থন হারিয়ে গত এক যুগ ধরে কোনোভাবেই ক্ষমতা দখল করতে পারছে না দলটি। এজন্য নিজেদের পুরোনো ইতিহাস আবার অবতারণা ঘটাতে দেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে কলুষিত করতে চাচ্ছে তারা। এমতাবস্থায় আসন্ন নির্বাচনে গিয়ে ভরাডুবির চেয়ে গুজব-অপপ্রচারই তাদের শেষ ভরসা। এছাড়া তারা ভুয়া ভোটার দিয়ে নির্বাচন করে অভ্যস্ত। জালিয়াতি করার সুযোগ পাবে না বলেই ইভিএম নিয়ে এসব গুজব ছড়াচ্ছে তারা।