বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

কলকাতার পূজা মণ্ডপে আজানের ধ্বনি

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত : ০৯:৫৫ এএম, ৬ অক্টোবর ২০১৯ রোববার

 

বিশ্বব্যাপী চলছে শারদীয় দুর্গোৎসব; সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অতি প্রাচীন এই ধর্মীয় উৎসবকে কেন্দ্র করে এবার গোটা ভারতে চলছে এক রমরমা পরিস্থিতি। যার একটুও ব্যতিক্রম নেই বাঙালি অধ্যুষিত রাজ্য পশ্চিমবঙ্গেও।

যদিও এবার প্রদেশটির কলকাতা শহরের একটি দুর্গাপূজার মণ্ডপে আচমকাই বেজে উঠেছে পবিত্র আজানের ধ্বনি। গত শুক্রবার (৪ অক্টোবর) মহাষষ্ঠীর দিনে বেলেঘাটা এলাকার ৩৩ পল্লী ক্লাবের পূজামণ্ডপে ঘটে এ ঘটনা। 

সম্প্রতি গোটা ভারতে কট্টর হিন্দুত্ববাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। যে কারণে দেশটিতে গেল কয়েক মাসে সংখ্যালঘু মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের ওপর বেশ কিছু সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনাও ঘটেছে। যদিও এ নিয়ে এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে।

যে কারণে এবার রাজ্যটিতে ধর্মীয় সম্প্রীতির বার্তা ছড়াতে কলকাতার সেই দুর্গাপূজা মণ্ডপটিকে সম্পূর্ণ বিশেষ ভাবে সাজানো হয়েছে। বেলেঘাটা ৩৩ পল্লীর সেই মণ্ডপটি সাজানো হয়েছে হিন্দু ছাড়াও অন্যান্য ধর্মের রীতিনীতি এবং ছবির নিদর্শনের মাধ্যমে। 

মন্দিরে দুর্গা প্রতিমার হাতে দেওয়া হয়নি কোনো অস্ত্র। এমনকি মণ্ডপের শুরুতেই দেখা যাচ্ছে বড় একটি ছাতা। আর সেই ছাতার তলাতেই রয়েছে মন্দির-মসজিদ ও গির্জা। সম্প্রীতি আর ভালোবাসার বার্তা দিয়ে পূজামণ্ডপ থেকে বাজানো হচ্ছে মুসলমানদের অন্যতম পবিত্র ধ্বনি আজান।

এবারের দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে বিশেষ এই থিমটি যে শিল্পীর কাছ থেকে এসেছে তিনি হচ্ছেন রিন্টু দাস। তার ভাষায়, ‘আমাদের এই থিমটির মূল বিষয়বস্তু হচ্ছে, আমরা সবাই এক, কেউ একা নই। সাম্প্রদায়িকতা ভুলে সবাই যাতে সম্প্রীতির পথে চলি, আমরা সেই বার্তাই সবাইকে দিতে চাই। মায়ের হাতে কোনো অস্ত্র নেই। সেটা এখানে যুদ্ধ ভুলে শান্তির বার্তা দেয়।’

যদিও রাজ্যে সম্প্রীতির বার্তা ছড়াতে এমন মণ্ডপে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নেওয়া হলেও এখনো পিছু ছাড়ছে না বিতর্ক ও উগ্রবাদ। মূলত ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে এরই মধ্যে পূজার আয়োজকদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন স্থানীয় এক আইনজীবী।

সূত্র : ‘কলকাতা টাইমস-২৪’