• বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ১১ ১৪৩১

  • || ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ

আশ্রয়ন প্রকল্পের নব নির্মিত ঘর পরিদর্শন করলেন উপ-সচিব

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

চরফ্যাশনে আশ্রয়ন প্রকল্পের আওয়াতায় জরাজীর্ণ ঘর গুলো পুনঃ নির্মানের কাজ পরিদর্শন করলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রায়ন প্রকল্প-২ এর উপ-সচিব মো. আরিফ সরদার। রবিবার সকালে দক্ষিণ আইচা থানার চর মানিকা ইউনিয়নের চর কচ্ছপিয়া গ্রামের প্রকল্পের নব নির্মিত নির্মাণাধীন ঘরগুলোর নির্মাণশৈলী ও গুণগতমান অনুমোদিত ডিজাইন ও প্রক্কলন অনুযায়ী হয়েছে কিনা তা পরিদর্শন করা হয়।

জানা যায়, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নওরীন হকের তত্ববধায়নের চরফ্যাশন উপজেলার জাহানপুর ও চর মানিকা ইউনিয়নে মুজিব বর্ষের ঘরের আদলে সেমি পাকা দুই কক্ষ এবং  রান্না ঘর, বারেন্দা ও শৌচাগারসহ আশ্রয়ন প্রকল্পের আওয়াতায় জরাজীর্ণ ৩৭০টি ঘর পুর্ণঃ নির্মান করা চলমান রয়েছে। এসব ঘর গুলো নির্মানের জন্য ব্যয় মূল্য নির্ধারন করা হয়েছে ৩ লক্ষ ৪ হাজার টাকা।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নওরীন হকের নিবির তত্ববধায়নে টেকসই পরিবেশ বান্ধব সেমি পাকা ঘর নির্মান করা হয়েছে। ঘর গুলোর নির্মান কাজের গুনগত মান সঠিক থাকায়র কারনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পের উপ-সচিব মো. আরিফ সরদার সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। শীঘ্রই এসব ঘর গুলো আশ্রীতদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নওরীন হক জানান, জরাজীর্ণ আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর গুলো নির্মানের জন্য ২৩ সনের নভেম্বের মাসে বরাদ্দ পাওয়ার পর পরই তিনি নির্মান কাজ শুরু করেছেন। জাতীয় সংসদ নির্বাচন চলাকালীন সময়ে তিনি তার একান্ত তত্ববধায়নের আশ্রীতদের জন্য ঘর গুলোর পুঃর্ণ নির্মান কাজ শুরু করেছেন। তার একান্ত  তদারকিতে মুজিব বর্ষের ঘরের আদলে এসব অশ্রয়ন প্রকল্পের এসব ঘর গুলো নির্মান কাজ প্রায় শেষ পর্যায় রয়েছে।   

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর উপ-সচিব মো. আরিফ সরদার জানান, প্রথম পর্যায়ে আশ্রীতদের জন্য ঘর গুলো পুনঃ নির্মান করে বসবাসের উপযোগী করা হয়েছে। পরবর্তীতে এসব ঘরের বাসিন্দাদের সরকারী নানান সুবিধার আওয়াতায় আনা হবে।