• বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

  • || ১০ শা'বান ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ

স্বামীর ‘বিশেষ অঙ্গ কেটে’ স্ত্রী বলেন পোকায় কামড় দিয়েছে

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ১৬ জানুয়ারি ২০২৪  

গাজীপুরের কোনাবাড়ীতে স্বামীর ‘বিশেষ অঙ্গ’ ব্লেড দিয়ে কেটে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্ত্রীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে কোনাবাড়ী থানার জরুন উত্তরপাড়া ভাড়া বাসা থেকে অভিযুক্ত নারীকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে, শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

ঐ নারী পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ থানার বাসিন্দা। তার স্বামী বরিশালের বাকেরগঞ্জ থানার বাসিন্দা। তারা কোনাবাড়ীতে ভাড়া বাসায় থেকে পোশাক কারখানায় কাজ করেন। অভিযুক্ত স্ত্রী ভুক্তভোগীর প্রথম স্ত্রী।

ভাড়ির মালিক জানান, শুক্রবার রাতে ভুক্তভোগীর চিৎকারে সবার ঘুম ভেঙে যায়। পরে তারা সবাই এগিয়ে গেলে তার প্রথম বলেন- তার স্বামীর গোপনাঙ্গে পোকায় কামড় দিয়েছে। পরে তাকে প্রথমে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে নেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে গাজীপুরের শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঐ রাতেই সেখানকার জরুরি বিভাগের চিকিৎসক জানান- ভুক্তভোগীর গোপনাঙ্গ কেটে দেওয়া হয়েছে।

রোববার রাতে অভিযুক্ত নারী বাসায় ফিরে এসে জানান, তার স্বামী সুস্থ আছেন। সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাসায় থাকলেও বিকেলে পালানোর চেষ্টা করেন তিনি। খবর পেয়ে কোনাবাড়ী থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর দ্বিতীয় স্ত্রী জানান, তার স্বামী শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন। ছয় বছর আগে তাকে বিয়ে করেন। তাদের সংসারে একটি সন্তান রয়েছে।

তিনি আরো জানান, অসুস্থ থাকায় ঠিকমতো কাজ করতে পারতেন না তার স্বামী। তারা দু’জনই পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। তবে কী কারণে ভুক্তভোগীর প্রথম স্ত্রী এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন বুঝতে পারছেন না। বর্তমানে ভুক্তভোগী উত্তরার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

অভিযুক্ত স্ত্রী স্বামীর গোপনাঙ্গ কাটার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তবে কেন এ ঘটনা ঘটিয়েছেন তা বলেননি।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোনাবাড়ী থানার ওসি মো. জিয়াইল ইসলাম। তিনি জানান, অভিযুক্ত নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।