• রোববার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • চৈত্র ৩০ ১৪৩০

  • || ০৪ শাওয়াল ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
আ.লীগ ক্ষমতায় আসে জনগণকে দিতে, আর বিএনপি আসে নিতে: প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা রাষ্ট্রপতির দেশবাসী ও মুসলিম উম্মাহকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী কিশোর অপরাধীদের মোকাবেলায় বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ব্রাজিলকে সরাসরি তৈরি পোশাক নেওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর জুলাইয়ে ব্রাজিল সফর করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী আদর্শ নাগরিক গড়তে প্রশংসনীয় কাজ করেছে স্কাউটস: প্রধানমন্ত্রী স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় স্কাউট আন্দোলনকে বেগবান করার আহ্বান তিন দেশ সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

মহাসড়কে পণ্যবাহী ট্রাক আটকে চাঁদাবাজি, গ্রেফতার ৩

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

বগুড়ার শাজাহানপুরে পণ্যবাহী ট্রাকে চাঁদাবাজির অভিযোগে তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। র‌্যাব-১২ বগুড়া কোম্পানির সদস্যরা মঙ্গলবার রাতে উপজেলার সুজাবাদ এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়ক থেকে তাদের গ্রেফতার ও চাঁদা আদায়ের দুটি রসিদ জব্দ করেন।

বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) বিকালে কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মীর মনির হোসেন এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য দিয়েছেন। এরপর তাদের শাজাহানপুর থানায় সোপর্দ করা হয়।

গ্রেফতার চাঁদাবাজরা হলেন বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার বেতগাড়ী গ্রামের রুহুল আমিনের ছেলে রবিউল ইসলাম (৩০), একই এলাকার মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে শাহজাহান আলী (৫২) ও সদরের লতিফপুর এলাকার মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে হজরত আলী (৪৪)।

র‌্যাব সূত্র জানায়, বগুড়ার শাজাহানপুরের মাঝিড়া ইউনিয়নের সুজাবাদ এলাকায় মহাসড়কে দুর্বৃত্তরা পণ্যবাহী ট্রাক আটকিয়ে চালক ও হেলপারকে ভয় দেখিয়ে চাঁদা আদায় করছিলেন। মঙ্গলবার রাতে এমন খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে ওই তিন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছে চাঁদা আদায়ের দুটি রসিদ পাওয়া গেছে। ওই রসিদে ‘বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন রাজশাহী বিভাগীয় আঞ্চলিক কমিটি’ লেখা রয়েছে। তারা রসিদ দেখিয়ে ট্রাকচালকদের কাছে ৩০০ টাকা করে আদায় করছিলেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা চাঁদাবাজির কথা স্বীকার করেছেন।

র‌্যাব কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মীর মনির হোসেন জানান, গ্রেফতার চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে মামলা করতে শাজাহানপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘জেলার সড়ক বা মহাসড়কের কোথাও গাড়ি থামিয়ে চাঁদাবাজির সুযোগ নেই। কেউ করলে তাকে কঠোরভাবে দমন করা হবে। এ ব্যাপারে গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রয়েছে।’