• বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

  • || ২১ জ্বিলকদ ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী যুদ্ধ মানবজাতির জন্য কী কল্যাণ বয়ে আনছে- প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বশান্তি নিশ্চিত করা এখন অতীতের চেয়ে কঠিন : শেখ হাসিনা বাংলাদেশ বিশ্ব শান্তি রক্ষায় এক অনন্য নাম : রাষ্ট্রপতি রাত ২টা পর্যন্ত নিজেই দুর্যোগ মনিটর করেছেন প্রধানমন্ত্রী রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ দ্রুত মেরামতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বৃহস্পতিবার পটুয়াখালী যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় যাবেন শেখ হাসিনা ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার অগ্রযাত্রায় মার্কিন ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক ডকুমেন্টারি ‘কলকাতায় মুজিব’ অবলোকন

বায়ু বিদ্যুৎ প্রকল্পের ৩০ মে.ওয়াট বিদ্যুৎ যুক্ত হচ্ছে

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৫ মে ২০২৩  

কক্সবাজারে বায়ু বিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রথম পর্যায়ের কাজ শেষ। আগামী দু-এক দিনের মধ্যে জাতীয় গ্রীডে ৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পরীক্ষামূলকভাবে যুক্ত হচ্ছে।

আজ বুধবার দুপুরে কক্সবাজারের খুরুশকুলে দেশের প্রথম এবং বৃহত্তম বায়ু বিদ্যুৎ প্রকল্প পরিদর্শনকালে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ জালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড তৌফিক ই ইলাহি চৌধুরী এ কথা জানান।

এসময় তিনি আরও জানান, দেশের বিদ্যুতের চাহিদার যোগান দিতে সরকার বেসরকারি খাতে আরও নতুন করে বায়ু বিদ্যুৎ প্রকল্প গ্রহণের সুযোগ দিচ্ছে। কক্সবাজারের খুরুস্কুলের এই প্রকল্প এ বছরের শেষের দিকে পুর্ণাঙ্গভাবে চালু করা সম্ভব হবে।

পরে পরিদর্শন কালে প্রকল্পের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিদ্যুৎ জালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হোন।

কক্সবাজার সদরের খুরুশকুলে স্থাপিত ৬০ মেগাওয়াটের বায়ু বিদ্যুৎ প্রকল্প গতবছর মার্চে এই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। এবছরের শেষের দিকে বায়ু বিদ্যুৎ প্রকল্পটি পুর্ণাঙ্গ উৎপাদনে আসার কথা রয়েছে।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ইউএস-ডিকে গ্রিন এনার্জি (বিডি) লিমিটেড দেশের প্রথম ও বৃহত্তম বায়ু শক্তি প্রকল্পটি স্থাপন করছে।

ইউএস ডিকে গ্রীন এনার্জি বিডি লিমিটেডের ব্যবস্হাপনা পরিচালক প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম খান জানিয়েছেন, বাতাস থেকে ৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য মোট ২৩টি টারবাইন স্থাপন করা হবে, যার প্রতিটি টারবাইন ৩-মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে। ইতোমধ্যে ১০টি টারবাইন স্থাপন করা হয়েছে। ব্যাকআপের জন্য স্ট্যান্ডবাই হিসেবে দুটি টারবাইন বসানো হবে।

তিনি আরও জানান, প্রকল্পটিতে ১২০ মেগাওয়াট পর্যন্ত উৎপাদন ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের কাছে একটি প্রস্তাব জমা দেয়া হয়েছে। যার জন্য আরও ২০টি টারবাইনের প্রয়োজন হবে।