• মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪৩১

  • || ১২ জ্বিলকদ ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ যত ষড়যন্ত্র হোক, আ.লীগ সংবিধানের বাইরে যাবে না: ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির আহতদের চিকিৎসায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী

ভান্ডারিয়ায় আচরণবিধি ভেঙে এমপির শোডাউন

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ১০ জুলাই ২০২৩  

নির্বাচনি আচরণবিধি ভেঙে মোটরসাইকেল আর গাড়িবহর নিয়ে নিজ নির্বাচনি এলাকা ভান্ডারিয়ায় এলেন জেপির (মঞ্জু) চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জু। শনিবার বিকালে পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া পৌর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

আগামী ১৭ জুলাই এই পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এভাবে বিশাল বহর নিয়ে তিনি তার দলের মেয়র প্রার্থী মাহিবুল ইসলাম মাহিমের পক্ষে শোডাউন করে নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন উল্লেখ করে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন নৌকার মেয়র প্রার্থী ফাইজুর রশিদ খসরু জমাদ্দার।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ফোন ধরেননি এমপি আনোয়ার হোসেন মঞ্জু। তার ব্যক্তিগত সহকারী মেসবাহ জানান, নিজের বাড়িতে এলেও নির্বাচনি কোনো কার্যক্রমে অংশ নেননি মঞ্জু। দলের নেতাকর্মীরা তাকে বরণ করে এনেছে মাত্র। এতে নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়নি।

রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবরে দেওয়া লিখিত অভিযোগ এবং সংবাদকর্মীদের নৌকার মেয়র প্রার্থী ফাইজুর রশিদ খসরু জোমাদ্দার বলেন, শনিবার বিকালে জাতীয় পার্টির (জেপি) চেয়ারম্যান ও স্থানীয় সংসদ-সদস্য আনোয়ার হোসেন মঞ্জু পুলিশ প্রটোকলে ভান্ডারিয়া উপজেলার প্রবেশমুখ বটতলা মোড় থেকে মোটরসাইকেল ও গাড়িবহর নিয়ে ভান্ডারিয়ায় প্রবেশ করেন।

এ সময় তার সঙ্গে থাকা কয়েকশ নেতাকর্মী জাতীয় পার্টির (জেপি) মেয়র প্রার্থীর পক্ষে সাইকেল মার্কার স্লোগান দেয়। শত শত গাড়ি একসঙ্গে হর্ন দিতে থাকে। এতে পুরো পৌর শহরে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। এ ঘটনা সাধারণ ভোটারের মধ্যে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এই মেয়র প্রার্থী।

তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি-জেপির বাইসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী মাহিবুল হোসেন মাহিম স্থানীয় সংসদ-সদস্য আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর আপন চাচাতো ভাই। তাই তিনি তাকে জেতাতে মরিয়া হয়ে এসব কাজ করছেন।বিষয়টি সম্পর্কে কথা বলার জন্য জেপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর মোবাইল ফোনে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলেও তা ধরেননি তিনি।

পরে তার ব্যক্তিগত সহকারী মেসবাহ বলেন, ‘জেপি চেয়ারম্যান যখনই এলাকায় আসেন তাকে স্বাগত জানায় দলের নেতাকর্মীরা। এবারও একইভাবে স্বাগত জানিয়েছে তারা। তা ছাড়া যেমন তিনি নির্বাচনি কোনো কর্মকাণ্ডে অংশ নেননি, তেমনি নেবেনও না। তিনি এসেছেন জেলে থাকা দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে। দেখা করে রোববারই তিনি ঢাকায় ফিরে যাবেন।’

এ সংক্রান্ত লিখিত অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও পৌর নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান খলিফা বলেন, ‘অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে জেপির মেয়র প্রার্থী মাহিবুল ইসলাম মাহিম আমাকে জানিয়েছেন, নির্বাচনি কোনো কর্মকাণ্ডে অংশ নিতে এলাকায় আসেননি আনোয়ার হোসেন মঞ্জু। এটা তার ব্যক্তিগত সফর এবং তিনি এসেছেন কারাবন্দি দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে।

বহর বলতে দলীয় নেতাকর্মীরা তাকে স্বাগত জানিয়ে এনেছে মাত্র। তারপরও আমি বিষয়টি ঢাকায় নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছি এবং তারা এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।’ প্রসঙ্গত, নির্বাচনি তফশিল ঘোষণার আগে থেকেই ভান্ডারিয়ায় আওয়ামী লীগ ও জেপির মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

রমজানের শেষ দিকে ভান্ডারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসে হামলা চালিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। সে সময় উভয় পক্ষের মধ্যে পালটাপালটি মামলায় উপজেলা জাতীয় পার্টি (জেপি) সাধারণ সম্পাদকসহ ১০ জন কারাগারে আছেন।