• বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

  • || ১০ শা'বান ১৪৪৫

পিরোজপুর সংবাদ

মঠবাড়িয়ায় ৪ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন মূলক কাজ

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২১ নভেম্বর ২০২৩  

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি : বলেশ্বর নদী ঘেষা পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলা। নানান প্রকৃতিক বৈচিত্র, বিভিন্ন ঐতিহ্য সম্পন্ন দেশের দক্ষিণাঞ্চলের তন্যতম উপজেলা মঠবাড়িয়া। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেধীন বর্তমান সরকার সারা দেশের ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। সে ধারাবাহিকতায় মঠবাড়িয়ায় অভাবনীয় উন্নয়ন মূলক কাজ হয়েছে বলে মনে করেন সর্বাস্তরের লোকজন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, মঠবাড়িয়া হয়ে আঞ্চলিক মহা সড়ক বঙ্গপসাগর সংলগ্ন পাথরঘাটা চলে গিয়েছে। অপর দিকে বরিশাল, খুলনা, ঢাকা মহা সড়কের সাথে যুক্ত হয়েছে। এ সড়কের অধিকাংশ ব্রিজ নির্মাণের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলা শহর থেকে উপজেলা ১১ টি ইউনিয়নে যোগাযোগ সড়ক ১৮ ফুটে প্রসস্তকরণের কাজ চলমান রয়েছে। উপজেলায় ৮৩০ টি পরিবার প্রধানমন্ত্রীর উপহার আশ্রায়ন প্রকল্পের ঘরে উৎসব মূখর পরিবেশে বসবাস করছেন। প্রত্যন্তাঞ্চল পর্যন্ত বিদ্যুৎ সংযোগ দেখা গেছে, সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভবন আধুনিকায়ন (বহুতল ভবন) হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধারা পেয়েছেন বীর নিবাস, নির্মিত হয়েছে মডেল মসজিদ। সচেতণ মহল মনে করেন বাংলাদেশ উন্নয়নের দিক থেকে ১‘শ বছর এগিয়ে বয়েছে।

উপজেলার ‘৬ নং মধ্য বড় মাছুয়া সরকারি বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেণীর ছাত্র খাইরুল আমীন ইমন (৭) জানায়, আমি প্রতি বছর নতুন বই পাই, টাকা (উপবৃত্তি) পাই, গিফট (উপহার) পাই। উত্তর বড় মাছুয়া গ্রামের গৃহিণী খাদিজা বেগম (৩৮) বলেন, আমার গ্রামে বিদ্যুৎ এসেছে, গ্রামের প্রায় প্রতিটি পরিবার ঘরে টিভি, ফ্রিজ কিনেছে। সবাই বিদ্যুতের সুবিধা গ্রহণ করছেন। বৃষ্টির পনি সংরক্ষনের জন্য অনেকেই ড্রাম পেয়েছেন। তিনি শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।

তহমিনা বেগম (৪৮) বলেন, শেখ হাসিনা মোর পেলারে জাগা (জমি) সহ নতুন ঘন দেছে, টিউবয়েল, পানির ড্রাম, গাছের চারা দিছে। আমাগো ঘরের কস্ট নাই। দক্ষিণ সোনাখালী গ্রামে আবাসন প্রকল্পে বসবাসকারি প্রতিবন্ধী আব্দুল জব্বার মিয়া বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে জমিসহ ঘর দিছেন, আমাকে প্রতিবন্ধি ভাতা দিচ্ছেন। আমারে ঘরের সামনে আমি দোকান করেছি। সবাই বেশ ভালই আছি।

বাস চালক আঃ সত্তার মিয়া (৪৫) বলেন, আগে মঠবাড়িয়া থেকে ঢাকা যেতে ১২ থেকে ১৪ ঘন্টা সময় লাগতো। রাস্তা মসৃণ হওয়ায় এবং পদ্মাসেতু নির্মাণ হওয়ায় এখন ঢাকা যেতে সময় লাগে মাত্র ৮ ঘন্টা।

তুষখালী গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক এইচ এম আকরামুল ইসলাম বলেন, উপজেলার সকল বিদ্যালয় ভবনগুলো আধুনিকায়ন বা বহুতল ভবন করা হয়েছে। এত শ্ক্ষিার পরিবেশ একদিকে সুন্দুর হয়েছে, অপরদিকে দূর্যোগ কালীন সময় লোকজন এ ভবনে আশ্রয় নিতে পারছেন।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ডাঃ মোঃ রুস্তুম আলী ফরাজি বলেন. বর্তমান সরকারের (গত ৫ বছর) আমলে ৪ হাজার কোটি টাকার বেশি মূল্যের উন্নয়ন করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন সরকাওে এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে শেখ হাসিনাকে পুণরায় ক্ষমতায় আনতে হবে।

মানবাধিকার কর্মি মোঃ নাজমুল আহসান কবির বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বধীন সরকার সারা বাংলাদেশের ন্যায় মঠবাড়িয়াতেও অভাবনীয় উন্নয়ন করেছেন। তিনি প্রসাংসা ও ধন্যবাদ পাবার দাবীদার।