• শুক্রবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৩ ১৪২৯

  • || ০৪ রজব ১৪৪৪

পিরোজপুর সংবাদ

মুখের লালা দিয়ে গর্ভধারণ পরীক্ষা, ১০ মিনিটেই জানা যাবে ফল

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ৪ ডিসেম্বর ২০২২  

নারী অন্তঃসত্ত্বা হলেন কি না তা জানতে ব্যবহার করা হয় প্রেগন্যান্সি কিট। গর্ভধারণ করলে শরীরে বিটা এইচসিজি নামে একটি হরমোন তৈরি হয়। যার উপস্থিতি প্রস্রাবেও নির্ণয় করা যায়। কিটের মাধ্যমে প্রস্রাব পরীক্ষা করা হয়।
আর এতে নিশ্চিত হওয়া যায় নারী অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন কি না।  যদিও প্রেগন্যান্সি কিট আধুনিক সময়ে গুরুত্বপূর্ণ সংযোজন তবুও প্রায় ৩ হাজার বছর ধরে প্রস্রাবের মাধ্যমেই নারীর গর্ভধারণ পরীক্ষা করা হয়। এবার শুধু প্রস্রাব পরীক্ষা নয় মুখের লালার মাধ্যমেও জানা যাবে নারী অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন কি না।  

‘স্যালিস্টিক টেস্ট কিট’ নামের একটি যন্ত্র যা মুখের লালা দিয়ে পরীক্ষা করা হবে এমন প্রথম কিট। বিশ্বজুড়ে প্রথমবারের মতো এই ধরনের টেস্ট কিট আনছে ইসরাইলের কোম্পনি স্যালিগনস্টিকস। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল জানিয়েছে আগামী বছর থেকে এই কিট পাওয়া যাবে। যার মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৮ ইউরো।
 
স্যালিগনস্টিকসের সহপ্রতিষ্ঠাতা গাই ক্রিফ বলেন, এই কিটের কার্যপদ্ধতি খুবই সহজ এবং আধুনিক। তবে কাজ করার পদ্ধতি বর্তমান কিট থেকে ভিন্ন। তিনি আরও বলেন, প্রথমে কোন নারী থার্মোমিটারের মতো একটি যন্ত্রে নিজের লালা রাখবেন তারপর একটি প্লাস্টিকের টিউবে ওই যন্ত্র স্থানান্তরিত করতে হবে।
 
ওই প্লাস্টিকে টিউবে থাকা জৈব রাসায়নিক বিক্রিয়ায় ১০ মিনিটের মধ্যে জানা যাবে নারী অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন কি না।  গাই ক্রিফ জানান, পরীক্ষার মাধ্যমে দেখা গেছে তাদের এই কিট ৯৫ শতাংশ সফল হয়েছে। মাত্র ৩ শতাংশ ভুল রিডিং দিয়েছে।
 
স্যালিগনস্টিকসের সহপ্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক অ্যারন পালমন বলেন, বিভিন্ন চিকিৎসায় লালা দ্রুত রোগ নির্ণয়ের চাবিকাঠি। এটি হরমোন, ভাইরাস এমনকি রোগ শনাক্ত করার একমাত্র নিরাপদ, সহজ এবং স্বাস্থ্যকর উপায়। এসব বিবেচনায় এই কিট বাজারে আসছে।