• বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৮

  • || ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

পিরোজপুর সংবাদ

একটুতেই শরীরে কালশিটে পড়া মারাত্মক রোগের লক্ষণ নয় তো?

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ৩০ অক্টোবর ২০২১  

সামান্য আঘাতেই শরীরে কালশিটে পড়ে যাওয়ার সমস্যায় অনেকেই ভুগে থাকেন। অনেক সময় নিজেই বুঝতে পারেন না যে, কোথায় বা কখন লেগে বেশ বড় কালশিটে পড়ে গেছে। আর তার সঙ্গে বেজায় ব্যথাও। 

মাঝেমধ্যে কালশিটে পড়তেই পারে। কিন্তু খুব ঘন ঘন যদি এই ধরনের সমস্যায় পড়েন, তাহলে কিন্তু ভাবার বিষয়। হতেই পারে এটি বড় কোনো রোগের উপসর্গ। চলুন জেনে নেয়া যাক কেন ঘন ঘন কালশিটে পড়তে পারে- 

>> ঘন ঘন কালশিটে পড়া হতে পারে ক্যান্সারের লক্ষণ। ব্লাড ক্যান্সার বা বোনম্যারো ক্যান্সার হলে কালশিটে পড়ার আশংকা বাড়ে।

>> রক্ত ঠিক মতো জমাট না বাঁধলে কিংবা রক্ত জমাট বাঁধতে দেরি হলে কালশিটে পড়ার আশংকা তৈরি হয়। সেই কারণে হেমোফিলিয়া জাতীয় রোগ থাকলে কালশিটে পড়ার প্রবণতা বেশি থাকে।

>> লিভার সিরোসিসের কারণেও দেখা দিতে পারে কালশিটে। অতিরিক্ত মদ্যপানের কারণে সাধারণত এই অসুখ হয়। লিভারের যে প্রোটিনটি রক্ত জমাট বাঁধতে সহায়তা করে, সেই প্রোটিনের উৎপাদন কমিয়ে দেয় এই অসুখ।

>> ঘন ঘন কালশিটে পড়ছে মানে ভিটামিনের অভাব নয় তো? শরীরে ভিটামিন সি বা ভিটামিন কে-র অভাব ঘটলেও কালশিটে পড়তে পারে। বিশেষ করে শরীরে ভিটামিন কে-র পরিমাণ বেশি কমে গেলে কালশিটে পড়ার প্রবণতা জন্মায়।

>> বিশেষ কোনো ওষুধের প্রতিক্রিয়াও হতে পারে কালশিটে পড়ার কারণ। অ্যাসপিরিন জাতীয় ওষুধ রক্ত জমাট বাঁধতে দেয় না। তাই এই ধরনের ওষুধ খেলে কালশিটে পড়ার আশংকা থাকে।

কখন ডাক্তারের কাছে যাবেন?

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এমন কালশিটে দাগ নিজে থেকেই সমাধান হয়। তবে কালশিটের সঙ্গে যদি হলদেটে ত্বক, জ্বর, দুর্বলতা ইত্যাদি থাকে তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।