• শনিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৯

  • || ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু ট্রাস্টের সভা বাংলাদেশ সবসময় ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় কর ব্যবস্থাপনা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী আইসিওয়াইএফ থেকে পাওয়া সম্মাননা প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর শিক্ষা ব্যবস্থা যাতে পিছিয়ে না যায় সে ব্যবস্থা নিচ্ছি প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল হস্তান্তর প্লিজ যুদ্ধ থামান, সংঘাত থামাতে সংলাপ করুন: শেখ হাসিনা হানিফের সংগ্রামী জীবন নতুন প্রজন্মের রাজনৈতিক কর্মীদের দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করবে মোহাম্মদ হানিফ ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতা

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ বয়কটের ডাক: স্ট্যাটাসে যা লিখল ধ্রুব টিভি

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২  

তরুণ প্রজন্মের কাছে খুবই জনপ্রিয় ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ ধারাবাহিকের চতুর্থ সিজন ধ্রুব টিভির ইউটিউব চ্যানেলে অবমুক্তির পর তুমুল সমালোচনার মুখে পড়ে।

এ নাটকের কয়েকটি পর্বের সংলাপকে ‘নোংরা’ বলে মন্তব্য নাট্যপ্রেমীদের।  এ নিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন ধারাবাহিকের নির্মাতা কাজল আরেফিন অমি। ঘোর আপত্তি উঠে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। একসময় নাটকটি বয়কটের ডাকও দেওয়া হয়।

নাটকটির অন্যতম প্রধান চরিত্র পাশাকে একটি সংলাপে বলতে শোনা যায়— ‘এই যৌনকর্মীর ছেলে’।  এ সংলাপ নিয়েই প্রথমে আপত্তি শুরু হয়। তার পর পুরো নাটকে বিভিন্ন সংলাপে ব্যবহৃত অশ্লীল গালাগালের প্রসঙ্গ টেনে আনেন নেটিজেনরা। এসব অশ্লীল সংলাপ সমাজে বিরূপ প্রভাব ফেলছে— এ অভিযোগ করে নাটকটি বয়কটের ডাক দেন তারা।

অবশেষে দর্শকদের সমালোচনা ও আপত্তির মুখে সেসব পর্ব ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি।

ধ্রুব টিভির ইউটিউব চ্যানেল ঘুরে দেখা যায়, চতুর্থ সিজনের ৭৪, ৭৫ ও ৭৬তম পর্ব মুছে ফেলা হয়েছে। পাশাপাশি ধ্রুব টিভির ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

তাদের সেই স্ট্যাটাস পাঠকের উদ্দেশ্যে হুবহু প্রকাশ করা হলো—

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট সিজন ফোরের সম্প্রতি প্রচারিত পর্বের কিছু সংলাপ নিয়ে সম্মানিত দর্শকবৃন্দ আপত্তি জানিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা করছেন। বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। সম্মানিত দর্শকদের প্রতি সম্মান রেখে আমরা ব্যাচেলর পয়েন্ট সিজন ফোরের প্রচারিত আপত্তিকর পর্বগুলো আমাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে ডিলিট করে দিয়েছি।’

‘ভবিষ্যতে আমরা নাটক প্রচারের ক্ষেত্রে আরও সতর্ক হব; যেন আমাদের সমাজ এবং সংস্কৃতির ওপর কোনো বিরূপ প্রভাব না পড়ে। দর্শকদের ভালোবাসাই আমাদের একান্ত চাওয়া। এ ভালোবাসা নিয়েই আমরা এগিয়ে যেতে চাই।