• বুধবার   ২৯ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৫ ১৪২৯

  • || ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

পিরোজপুর সংবাদ
ব্রেকিং:
পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রে জড়িতদের খুঁজতে কমিশন গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের ব্যবসা বৃদ্ধিতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী উন্নত যোগাযোগব্যবস্থা শিল্পায়নকে ত্বরান্বিত করে: প্রধানমন্ত্রী দু-একদিনের মধ্যে কমবে তেলের দাম: বাণিজ্যসচিব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতেও ডোপ টেস্ট : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পদ্মা সেতু সক্ষমতা-মর্যাদার প্রতীক: প্রধানমন্ত্রী ১০০ বছরেও কোনও ক্ষতি হবে না পদ্মা সেতুর: মন্ত্রিপরিষদ সচিব বাঙালি জাতির সমস্ত অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরে এসেছে: তথ্যমন্ত্রী সংক্রমণ বাড়ছে, শিগগির বুস্টার ডোজ নিন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে আরো শক্তিশালী করতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

পদ্মাসেতু নিয়ে বেফাঁস মন্তব্যের জন্য বিব্রত বিএনপি-খালেদা জিয়া

পিরোজপুর সংবাদ

প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০২২  

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেছিলেন, পদ্মাসেতু বানাতে পারবে না আওয়ামী লীগ সরকার। আর সেতু হলেও কেউ তাতে চড়বে না। খালেদা জিয়ার সেই অনুমান ভুল প্রমাণিত হয়েছে। স্বপ্নের পদ্মাসেতু উদ্বোধন হচ্ছে ২৫ জুন। যার ফলে পদ্মাসেতু নিয়ে সেই মন্তব্যে বিব্রত বিএনপি ও খালেদা জিয়া।

জানা গেছে, পদ্মাসেতু নিয়ে করা মন্তব্যের কারণে লজ্জিত খালেদা জিয়াও। এরইমধ্যে পদ্মাসেতু দেখে মানসিকভাবে অস্বস্তিতে পড়েছেন। তিনি মুখ দেখাতে পারছেন না আত্মীয়-স্বজনদের কাছে। পদ্মাসেতুর বিরোধিতা করার কারণে এখন দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের কাছেও ক্ষমা চাইতে চান খালেদা জিয়া।

মূলত পদ্মাসেতু নিয়ে শুরু থেকেই খালেদা জিয়া বিরোধিতা করেছিলেন। কটাক্ষ করেছেন, সরকারি উদ্যোগের ব্যঙ্গ-বিদ্রূপ করেন। দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগও তুলেছেন। সরকার এতবড় কর্মযজ্ঞ সাধন করতে পারবে না বলেও মন্তব্য করেন বিএনপি নেত্রী। কিন্তু সরকারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় স্বপ্ন আজ বাস্তবতা। ২৫ জুনের উদ্বোধনের তারিখ ঘোষণার পর চরম বিব্রত ও লজ্জায় পড়েছেন খালেদা জিয়া।

খালেদা জিয়ার গুলশানের বাড়ি ফিরোজার গোপন সূত্র বলছে, খালেদা জিয়ার দৃঢ় বিশ্বাস ছিল, সরকার পদ্মাসেতুর কাজ সম্পন্ন করতে পারবে না। বৈদেশিক ঋণ নেবে, এমনকি সহায়তাও চাইবে। কিন্তু বর্তমান সরকার নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতুকে পুরোপুরি দৃশ্যমান করেছে। তার অনুমান ভুল প্রমাণিত হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে চিন্তা করে তিনি মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন।

এ বিষয় রাজনীতি বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবীরা বলেন, পদ্মাসেতুর বিরোধিতা করে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের সঙ্গে খালেদ জিয়া অন্যায় করেছেন। যেহেতু পদ্মাসেতু আজ দৃশ্যমান তাই এটির আর বিরোধিতা করা বা সমালোচনা করা বিএনপির কোনোভাবেই সমীচীন হবে না। পদ্মাসেতুর কারণে দক্ষিণাঞ্চলে সরকারি দলের ভোট ব্যাংক আরো শক্তিশালী হবে এবং বিএনপির অবস্থান আরো দুর্বল হয়ে পড়বে।